প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা

মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস উদযাপন করেছে প্রাইমএশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। গতকাল শনিবার (২৬ মার্চ) জাতির সূর্য সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সকাল সাড়ে ১১ টায় বনানী স্টার টাওয়ারের বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসি কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত এই আলোচনায় উঠে আসে ২৫ মার্চের ভয়াল কালরাত, স্বাধীনতার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু ও দেশের তরে অকাতরে প্রাণ দেয়া বীর সেনানীদের কথা। 

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জনাব মো. নজরুল ইসলাম।

উপ-উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. নূরুন্নবী মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের ভাইস-চেয়ারম্যান জনাব মো. রায়হান আজাদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. ইফ্ফাত জাহান। 

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান জনাব মো. নজরুল ইসলাম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ডাকে আজকে স্বাধীন একটি ভূখণ্ড পেয়েছে বাংলাদেশের মানুষ। লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত এই স্বাধীনতার মান ধরে রাখার গুরু দায়িত্ব এখন আমাদের সকলের। তাই ভালবেসে দেশকে এগিয়ে নিতে এবং দেশের অর্থনীতিকে স্বনির্ভর করে তুলতে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন। এই চেষ্টায় সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখতে পারে তরুণ শিক্ষার্থী ও শিক্ষকেরা। কারণ আজকের সঠিক দিক নির্দেশনায় গড়ে উঠা নতুন প্রজন্মই আগামীতে দেশকে নেতৃত্ব নিবে। আর এজন্য সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকেও অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের ভাইস-চেয়ারম্যান জনাব মো. রায়হান আজাদ বলেন, ২৬ মার্চ বাঙালির গৌরবদীপ্ত দিন– মহান স্বাধীনতা দিবস। আজকের এই দিনে মহান স্বাধীনতার রূপকার বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক জাতীয় চার নেতা, নৃশংস গণহত্যার শিকার লাখো সাধারণ মানুষ এবং সম্ভ্রম হারানো মা-বোনের প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। মহান এই দিনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ার অঙ্গীকার করাই সকলের দায়িত্ব।    

বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. ইফ্ফাত জাহান বলেন, বাংলাদেশ, বাংলা ভাষা, বাঙালি- একই সুতোয় গাঁথা তিনটি শব্দ। যা ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা লাভের মাধ্যমেই পরিপূর্ণতা পেয়েছে। আর এই স্বাধীনতা যারা আমাদের এনে দিয়েছেন তাদের জানাই সালাম। নতুন প্রজন্ম সঠিক ইতিহাস পড়বে, জানবে এমনটাই প্রত্যাশা সবার। কারণ নতুন প্রজন্ম থেকেই গড়ে উঠবে আগামী দিনের নেতা।

সভাপতির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. নূরুন্নবী মোল্লা বলেন,অনেক রক্তের দাম দিয়ে কেনা আমাদের স্বাধীনতা। এই স্বাধীনতা ঋণ কখনো শোধ হবার নয়। জাতির সূর্যসন্তানদের আত্মত্যাগের দিকে তাকিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে সবার কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করা উচিত। ইতোমধ্যে বিশ্ব দরবারে আমরা প্রশংসিত হয়েছি।আগামীতে আমাদের আরো এগিয়ে যেতে হবে।   

আলোচনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শুভময় দত্ত। মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন শেখ মো. হাসানুজ্জামান। বাণিজ্য অনুষদের ডীন ও দেশ বরেণ্য শিল্পী ও নজরুল গবেষক অধ্যাপক ড. নাশিদ কামাল তার বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের সময় হারিয়ে যাওয়া কাছের মানুষদের স্মৃতিচারণ করেন। স্বাধীনতার বিকৃত ইতিহাসকে পরিত্যাগ করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও স্বাধীনতায় চেতনায় উজ্জীবিত হওয়ায় আহ্বান জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের কনসালটেন্ট (ল্যান্ড এন্ড ডেভেলপমেন্ট) সুজাদুর রহমান। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মানবিক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. নাসরীন আক্তার।  

আলোচনা শেষে সাংস্কৃতিক পর্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে নাচ, গান, আবৃত্তি ও কৌতুক মুগ্ধ করে আগত অতিথিদের। এরআগে সকাল সাড়ে নয়টায় দেশীয় সংস্কৃতির আদলে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে পরিবেশিত হয় “ফ্ল্যাশ মব”। স্বাধীনতার চেতনা ও দেশপ্রেমকে উজ্জীবিত করা গানের তালে তালে ফ্ল্যাশ মবে শিক্ষার্থীদের মনোমুগ্ধকর নৃত্য আন্দোলিত করে সমগ্র প্রাইমএশিয়া পরিবারকে।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //