‘আমি কি এতোই খারাপ ছিলাম?’

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম বলেছেন, আমার সময় কেন এতো আন্দোলন হলো? উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনে নির্বাচিত হয়ে উপাচার্য হিসেবে আমার অভিষেক অনুষ্ঠানের দিন কেন গুলি ফুটানো হলো? সে সময় আমার কি দোষ ছিল। আমি কি এতোই খারাপ ছিলাম?

আজ বুধবার (২৫ জানুয়ারি) শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবে ভোট প্রদান শেষে সাংবাদিকদের সাথে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ষষ্ঠ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, এ বিষয়ে সাবেক এই উপাচার্যের বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, সমাবর্তন প্রতি বছর হওয়া উচিত। আমি এর আগেও এটা বলেছি। কিন্তু আমার সময় বিশ্ববিদ্যালয় জুড়ে অস্থিতিশীল পরিবেশ ছিল। কেউ আমাকে প্রোটেক্ট করেনি। প্রো-ভিসিরাও আমাকে প্রোটেক্ট করেনি, প্রক্টরও আমাকে প্রোটেক্ট করেনি৷  এতো আন্দোলন তখন কেন হয়েছে? এখন এক বেলা আন্দোলন হয় না। এটার কারণ সাংবাদিকরা বের করতে পারলে তারা সার্থক হবে।

সে সময়ে  প্রক্টর ফিরোজ-উল-হাসানের ভূমিকা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সে সময়ে প্রক্টর আমাকে রক্ষা করেনি৷ কিন্তু কারেন্ট এডমিনিস্ট্রেশন (বর্তমান প্রশাসনকে) সেভ করে যাচ্ছে। এই ভিসি কিভাবে এসেছে? তার প্রো-ভিসি হওয়ার সময় কি আমি তার জন্য সুপারিশ করি নাই?

উন্নয়ন প্রকল্পের ২ কোটি টাকার দুর্নীতির বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আক্ষেপ করে বলেন, যে টাকা ছাড় হয়নি সেটা আমি কিভাবে খরচ করে ফেললাম? এটা বলা ঠিক না। এটা যদি আমার সময়ে কেউ করে থাকে কাউকে খুশি করতে, এর দায়-দায়িত্ব আমি নিবো না।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনে সর্বোচ্চ সংখ্যক ভোট পান অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম। এরপর ২মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতির আদেশে দেশের প্রথম নারী উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান তিনি। প্রথম মেয়াদে দায়িত্ব পালনের পর ২০১৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি আচার্যের নির্বাহী আদেশে দ্বিতীয় মেয়াদে নিয়োগ পান ফারজানা ইসলাম। গত বছরের ১ মার্চ তার মেয়াদ শেষ হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ও বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক মো. নূরুল আলমকে উপাচার্যের রুটিন দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //