প্রস্তাবিত বাজেটে প্রতিবন্ধীদের জন্য বরাদ্দ বৃদ্ধির আহ্বান

প্রতিবন্ধীদের জন্য সরকারে গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়ন পদক্ষেপের প্রশংসা করে তাদের অধিকার ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত ব্যক্তিরা প্রস্তাবিত বাজেটে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের চাহিদা পূরণে বরাদ্দ আরো বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছেন। 

বক্তারা বলেন, প্রতিবন্ধিদের জন্য সংশ্লিষ্ট খাতে মোট বরাদ্দ ২ হাজার ৮৬৪ কোটি টাকা, যা সামাজিক নিরাপত্তা খাতের মাত্র ২ দশমিক ৫২ শতাংশ এবং মোট প্রস্তাবিত বাজেটের শূণ্য দশমিক ৪২ শতাংশ মাত্র।

অ্যাকসেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন ‘জাতীয় বাজেট ২০২২-২৩ : প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অবস্থান’ শীর্ষক বাজেট পরবর্তী প্রতিক্রিয়া জানাতে জাতীয় প্রেস ক্লাবে আজ এক সভার আয়োজন করে। 

ডাব্লিউডিডিএফ-এর নির্বাহী পরিচালক আশরাফুন নাহার মিষ্টির সভাপতিত্বে আয়োজক সংস্থার পক্ষে অ্যাকসেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন এর নির্বাহী পরিচালক আলবার্ট মোল্লা বাজেটে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বরাদ্দের উপর মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন। 

সভায় প্রতিবন্ধী নারীদের জাতীয় পরিষদ-এর সভাপতি নাসরিন জাহান, বি-স্ক্যান এর সাধারণ সম্পাদক সালমা মাহবুব, অ্যাকসেস বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান মহুয়া পাল বক্তব্য রাখেন।

নেতৃবৃন্দ ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মাসিক ভাতা ১শ’ টাকা বৃদ্ধি করে ৮শ’ ৫০ টাকা, উপকারভোগীর সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার বৃদ্ধি এবং এ খাতে বরাদ্দ ৬০৯ কোটি ১৮ লক্ষ টাকা বৃদ্ধি করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান। 

সভায় তারা প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ক্রীড়া কমপ্লেক্স এর জন্য ১২০ কোটি টাকা এবং কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট কার্যক্রম এর জন্য ৪০ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাবকে স্বাগত জানান। 

সেই সাথে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পড়ার উপকরণ ব্রেইল মুদ্রণের উপর ভ্যাট অব্যাহতির প্রস্তাব,  শ্রবণ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য কানে শোনার যন্ত্রে ব্যবহৃত ব্যাটারি এর উপর শুল্ক কর ২৫ শতাংশ থেকে হ্রাস করে ৫ শতাংশ করার প্রস্তাব করায় প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

এতে বলা হয়,  প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের দক্ষতা উন্নয়ন ও আত্ম কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কোন উদ্যোগ বাজেটে নেই। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বাজেট বরাদ্দ সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কেন্দ্রিক, অথচ অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন ধারণায় মন্ত্রণালয় ভিত্তিক বাজেট বরাদ্দ প্রয়োজন। এছাড়া বাজেটে প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক আন্তর্জাতিক সনদ, জাতীয় আইন, নীতিমালা, কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন জরুরি। 

সভায় বি-স্ক্যান সাধারণ সম্পাদক সালমা মাহবুব সরকারের কাছে ১০টি দাবি পুনর্বিবেচনার জন্য তুলে ধরেন। যার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হলো- প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ভাতা জনপ্রতি মাসিক ন্যূনতম ২০০০ টাকায় উন্নীত করা, গুরুতর প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কেয়ারগিভারের জন্য ভাতা কার্যক্রম চালু করা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের শিক্ষার আওতায় আনতে ও ঝরে পড়া রোধ করতে উপকারভোগীর সংখ্যা বাজেটে কমপক্ষে দ্বিগুণ (২ লক্ষ) করা প্রভৃতি।

আলোচনায় বেসরকারি সংস্থা, সাংবাদিক, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, সুশীল সমাজ, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংগঠনের প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন। 

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //