দুর্দান্ত তাসকিনে লড়ছে বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার সারাদিন বল করে মাত্র ১ উইকেট নিতে পেরেছিল বাংলাদেশ। বিপরীতে ৯০ ওভারে শ্রীলঙ্কা তুলে ফেলেছিল ২৯১ রান। তবে শুক্রবার ম্যাচের দ্বিতীয় দিন ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। দিন শেষে তুলে নিয়েছে ৫টি উইকেট

আগুন ঝরা বোলিং করে তাসকিন আহমেদ একাই নিয়েছেন ৩টি উইকেট। এছাড়া দুই স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলামের শিকার ১টি করে উইকেট। 

২৯১ রানে প্রথম দিনের খেলা শেষ করা শ্রীলঙ্কা হারিয়েছিল মাত্র ১ উইকেট। দ্বিতীয় দিনের সকালের সেশনে খেলা হয় ২৬ ওভার। বাংলাদেশি বোলারদের আঁটসাঁট বোলিংয়ে মোটে ৪৩ রান যোগ করে স্বাগতিকরা। হারায় ৩ উইকেট। যেখানে গতি আর আগ্রাসনের সঙ্গে ধারাবাহিক লাইন-লেংথে বল করে সেঞ্চুরিয়ান লাহেরু থিরিমান্নের উইকেট তুলে নেন তাসকিন।


থিরিমান্নেকে ১৪০ রানে ফেরানোর পর অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুউসকেও সাজঘরের পথ দেখান এই পেসার। প্রথম সেশনেই উইকেট থেকে শার্প টান পেয়েছেন তাইজুল। ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে আউট করেন ২ রানের মাথায়। পরে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩৩৪ রান দিয়ে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

বিরতি থেকে ফিরে আবারও বাংলাদেশি বোলারদের শাসন করতে থাকেন অপরাজিত দুই ব্যাটসম্যান ওশাদা ফার্নান্দো ও পাথুম নিশাঙ্কা। দেখে শুনে খেলে পঞ্চম উইকেট পার্টনারশিপে ৫২ রান যোগ করেন দুজন। এই জুটি যখন সফরকারী শিবিরে আতঙ্ক তৈরি করে, তখন বল হাতে আবার ত্রাতা হয়ে আসেন তাসকিন। 

ইনিংসের ১৩৬তম ওভারের চতুর্থ বলে নিশাঙ্কাকে রীতিমত বোকা বানান তাসকিন। খাটো লেংথের বলের লাইন পড়তে পারেননি নিশাঙ্কা, সরাসরি বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ৩০ রান করে। অর্ধশতক হাকানো ফার্নান্দো শতকের দিকে ছুটেছিলেন, তবে ভাগ্য সুপ্রসন্ন হয়নি তার। পরের ওভারেই মিরাজের বলে ৮১ রান করে আউট হন তিনি। মিরাজকে সুইপ করতে গেলে বল শুরুতে তার হাতে লেগে পরে ব্যাটের কানা ছুঁয়ে লিটনের গ্লাভসে জমা হয়।

লঙ্কনাদের বিপক্ষে দ্বিতীয় দিনের তৃতীয় সেশনের শুরুতেও বল হাতে আলো ছড়ান তাসকিন। যদিও এই সেশনে কোনো উইকেটের দেখা পাননি। বৃষ্টি আর আলোক স্বল্পতার কারণে দুই দফা খেলা বন্ধ থাকায় তৃতীয় সেশনে সব মিলিয়ে ২০ ওভারের মতো খেলা হয়েছে। এই সেশনেই ইনিংসের ১৫২তম ওভারে দ্বিতীয় ক্যাচটি ছাড়েন শান্ত।


লঙ্কান দুই ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকওয়েলা ৩১ ও রমেশ মেন্ডিস ১২ রানে নিয়ে তৃতীয় ও শেষ সেশনের খেলা শুরু করেন। এই সেশনের দ্বিতীয় ওভারে তাইজুলের বলে এলবিডাব্লিউ হন ডিকওয়েলা। তবে কুমার ধর্মসেনার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বেঁচে যান তিনি। পরে অনবদ্য ব্যাটিংয়ে টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৮তম ফিফটি তুলে নেন তিনি।

দ্বিতীয় দিনে অবশ্য দলকে আর কোনো বিপদে পড়তে দেননি ডিকওয়েলা। সপ্তম উইকেটে রমেশ মেন্ডিসের সঙ্গে অবিচ্ছেদ্য ৮৭ রানের পার্টনারশিপে গড়ে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন তিনি। তবে আলোক স্বল্পতার কারণে প্রায় ২৪ ওভারের মতো কম খেলা হয়। লঙ্কানরা ইনিংস ঘোষণার সিদ্ধান্ত না নিলে আগামীকাল (শনিবার) ম্যাচের তৃতীয় দিনে ডিকওয়েলা ৬৪ ও মেন্ডিস ২২ রানে অপরাজিত থেকে ব্যাটিং শুরু করবেন।


সংক্ষিপ্ত স্কোর-


শ্রীলঙ্কা: দ্বিতীয় দিন শেষে: ৪৫৯/৬, ১৫৫.৫ ওভার (থিরিমান্নে ১৪০, করুনারত্নে ১১৮, ফার্নান্দো ৮১, ডিকওয়েলা ৬৪; তাসকিন ৩/১১৯, তাইজুল ১/৮৩, শরিফুল ১/৯১)



মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh