ম্যাচ জিতিয়ে ‌‘ক্ষুধা’ মেটালেন শামীম

সিরিজ জেতার পর সাকিব আল হাসানের সঙ্গে মীম হোসেন পাটোয়ারি। ছবি: বিসিবি

সিরিজ জেতার পর সাকিব আল হাসানের সঙ্গে মীম হোসেন পাটোয়ারি। ছবি: বিসিবি

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়েই জাতীয় দলে প্রথম ডাক পান শামীম হোসেন পাটোয়ারি। প্রথম ম্যাচে জায়গা না হলেও শেষ দুই ম্যাচে সুযোগ পেয়েই করলেন বাজিমাত। আগ্রাসী ব্যাটিং, অসাধারণ ফিল্ডিং আর সাথে কার্যকর বোলিং- শামীম যেন টাইগার ক্রিকেটের বহুল আরাধ্যের সেই সোনার হরিণ।

তবে আলোচনায় ছিলেন আগে থেকেই। যুবাদের হয়ে বিশ্বকাপ জয়। এরপর বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ কিংবা সদ্য সমাপ্ত ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ- শামীম হোসেন পাটোয়ারি উজ্জ্বল ছিলেন সর্বত্র। সুযোগটাও তাই মিলল আগেভাগে। 

অভিষেক ম্যাচে না পারলেও শেষ ম্যাচে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছেড়েছেন এই অলরাউন্ডার। ১৫ বলে ৩১ রানের এক ‌‘মিনি টর্নেডো’ ম্যাচজয়ী ইনিংস খেলার পর শামীম জানিয়েছেন, দ্বিতীয় ম্যাচে থেকে যাওয়া ক্ষুধা মিটিয়েছেন শেষ ম্যাচে। ২২ গজে নামার আগেই ম্যাচ শেষ করে ফেরার লক্ষ্য ঠিক করেছিলেন ২০ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।  

ম্যাচ শেষে বিসিবির দেয়া এক ভিডিও বার্তায় শামীম বলেন, ‘অনেক ভাল লাগছে। গত ম্যাচে শেষ করতে পারিনি। আমার মধ্যে একটা ক্ষুধা ছিল যে, পরের ম্যাচটিতে যদি সুযোগ পাই, আমার লক্ষ্য থাকবে শেষ করা। সেই সুযোগটা পেয়ে শেষ করতে পেরেছি, তাই অনেক ভাল লাগছে।’

তবে তৃতীয় ম্যাচে শামীম যখন মাঠে নামেন, তখন পরিস্থিতি ছিল জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণে। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে তার ১৯ বলে ৩৭ রানের জুটিতে লক্ষ্য চলে আসে নাগালে। অধিনায়কের দেয়া নির্দেশনা মেনে খেলার কারণেই এমন সাফল্য বলে অভিমত শামীমের। 

তিনি বলেন, ‘মাঠে রিয়াদ ভাই আমাকে বলছিল যে ওভারে ১০ করে আসলে ম্যাচটা সহজে চলে আসবে। একটা বাউন্ডারি বা একটা ছক্কা এলেই হবে। আমি আমার প্রক্রিয়া ধরে রেখেই খেলেছি।’

বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে মুগ্ধ করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খাবি খাওয়ার উদাহরণ অজস্র। টাইগার ক্রিকেটেও এমন উদাহরণ জ্বলন্ত। বয়সভিত্তিক বা ঘরোয়া ক্রিকেটের তুলনায় এই বিশ্বমঞ্চটা যে কঠিন তা টের পাচ্ছেন এই যুবা বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার। 

তার মতে, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেক কঠিন। এতদিন অনূর্ধ্ব-১৯ খেলেছি, ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ খেলেছি। তার চেয়ে আন্তর্জাতিক অনেক কঠিন, অনেক আলাদা, তা বুঝতে পেরেছি এখানে এসে।’

তবে অভিষেকের মঞ্চটা জয় দিয়ে শুরু করতে পেরে খুশী উল্লেখ করে শামীম যোগ করেন, ‘আমার যেহেতু অভিষেক টি-টোয়েন্টি দিয়ে, আমার জন্য তাই ভালো হয়েছে যে সিরিজ জয় দিয়ে শুরু করেছি। এটা আমার জন্যও ভালো হয়েছে, দলের জন্যও।’

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //