কনওয়ের সেঞ্চুরির টেইলরকে ফেরালেন শরিফুল

নিউজিল্যান্ডে শুরুটা দারুণ হয়েছিল বাংলাদেশের। টস জিতে অধিনায়ক মুমিনুল হকের বোলিং নেওয়ার যথার্থতা ফুটে উঠে ইনিংসের চতুর্থ ওভারেই। টম ল্যাথামকে ফিরিয়ে আনন্দের মুহূর্ত এনে দেন শরিফুল। 

অপরদিকে ব্যাটিংয়ে নেমে নিউজিল্যান্ডের শুরুর ধাক্কা সামলে উঠার পেছনে বড় ভূমিকা ছিল ডেভন কনওয়ের। পরে ১৮৬ বলের মোকাবিলায় দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরিও হাঁকান এই কিউই ব্যাটার। এটি তার ক্যারিয়ারের মাত্র দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। 

তবে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি অভিজ্ঞ ব্যাটার রস টেইলর।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নিজেদের প্রথম ইনিংসে কিউইদের সংগ্রহ ৮০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২২৭ রান।  

আজ শনিবার (১ জানুয়ারি) নতুন বছরের প্রথম দিন সকালেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট লড়াইয়ে নেমেছে বাংলাদেশ। বে ওভালের মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে সিরিজের প্রথম টেস্টে টস জিতে বোলিং বেছে নেয় সফরকারীরা। 

তাসকিন, শরিফুল ও ইবাদতকে নিয়ে সাজানো টাইগারদের পেস আক্রমণের শুরুটাও ভালোই ছিল। তাসকিন ও শরিফুল দুজনেই সুইং আদায় করে নেন। তবে প্রথম সাফল্য পান চোট কাটিয়ে টেস্ট দলে ফেরা শরিফুল।

কিউই ওপেনার ও ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক টম ল্যাথামকে দিনের চতুর্থ ওভারেই বিদায় করেন শরিফুল। তার ভেতরে ঢোকা বল ল্যাথামের (১) ব্যাটের ভেতরের কানা ছুঁয়ে প্যাডে লেগে যায় পেছনে। আর ঝাঁপিয়ে তা এক হাতে তালুবন্দি উইকেটরক্ষক লিটন দাসে।  

ল্যাথাম বিদায় নেওয়ার পর উইকেটে থিতু হন ইয়ং ও কনওয়ে। তবে ইয়াং প্রথম রানের দেখা পান ২২ বল খেলে। কনওয়েও ২২ বলে রান করেন মাত্র ২। তবে ধীরে ধীরে হাত খুলতে শুরু করেন দুজনেই। ১০২ বলে জুটিতে ফিফটি রান আসে। প্রথম সেশনটা আর কোনো উইকেট হারাতে দেননি তারা।

দ্বিতীয় সেশনে কিছুটা মারমুখী হন কনওয়ে ও ইয়াং। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে বিশাল ছক্কা হাঁকিয়ে ১০১ বলে ফিফটি তুলে নেন কনওয়ে। পরে ১৩১ বলে ফিফটির দেখা পান ইয়াং। দুজনের জুটিতে আসে ১৩৮ রান। এরপর মিরাজের বলে সিঙ্গেল নিতে গিয়ে নাজমুল হোসেন শান্তর থ্রোয়ে রানআউটের শিকার হন ইয়াং (৫২)।  

এরপর বিদায়ী টেস্ট খেলতে নামা রস টেইলরকে নিয়ে ফের ঘুরে দাঁড়ান কনওয়ে। দুজনের জুটি জমে উঠার পথে সেঞ্চুরি হাঁকান তিনে নামা কনওয়ে, দারুণ সঙ্গ দেন টেইলরও। দুজনের জুটিতে আসে ৫০ রান। সেঞ্চুরি হাঁকানো পথে ১৪টি চার ও একটি ছক্কা হাঁকান কনওয়ে। তবে পরের ওভারেই শরিফুলের বলে কভারে থাকা সাদমান ইসলামের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে বিদায় নেন ৩১ রান করা টেইলর।

বাংলাদেশ একাদশ

সাদমান ইসলাম, মাহমুদুল হাসান, নাজমুল হোসেন, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, ইয়াসির আলী, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, ইবাদত হোসেন ও শরীফুল ইসলাম।

নিউজিল্যান্ড একাদশ

টম ল্যাথাম, উইল ইয়াং, ডেভন কনওয়ে, রস টেলর, হেনরি নিকোলস, টম ব্লান্ডেল, রাচিন রবীন্দ্র, কাইল জেমিসন, টিম সাউদি, নিল ওয়াগনার, ট্রেন্ট বোল্ট।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //