বর্ণবাদের অভিযোগ থেকে মুক্ত স্মিথ

দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ও ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার (সিএসএ) সাবেক পরিচালক গ্রায়েম স্মিথ অবশেষে বর্ণবাদের অভিযোগ থেকে মুক্ত হয়েছেন। জাস্টিস অ্যান্ড নেশন-বিল্ডিং (এসজেএন) কমিশন এক প্রতিবেদনে এ অভিযোগ তুলেছিল। সিএসএয়ের গঠিত এক নিরপেক্ষ কমিটি তদন্তের পর তা নাকচ করে দিয়েছে।

মূল অভিযোগ ছিল কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় ও কোচদের জাতীয় দলে নির্বাচন না করে স্মিথসহ দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ মার্ক বাউচার ও সাবেক অধিনায়ক এবি ডি ভিলিয়ার্স তাদের প্রতি বৈষম্য করেছেন তারা।

স্মিথের বিপক্ষে সুনির্দিষ্ট তিনটি বর্ণবাদের অভিযোগ তোলা হয়েছিল। প্রথম অভিযোগ হলো- তিনি অধিনায়ক থাকাকালে ২০১২ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেন উইকেটকিপার থামি সোলেকাইল। কৃষ্ণাঙ্গ খেলোয়াড় হওয়ায় তাকে টেস্ট খেলানো হয়নি। এর সাথে স্মিথ জড়িত ছিলেন।

স্মিথের বিপক্ষে পরের দুটি অভিযোগ তার ক্রিকেট পরিচালক পদে থাকা অবস্থায়। একটি হলো, সাবেক প্রধান নির্বাহী থাবাং মোরোয়ের সাথে কাজ করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে কৃষ্ণাঙ্গ নেতৃত্বের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলের স্মিথ। অন্যটি তার সাবেক সতীর্থ মার্ক বাউচারকে প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার সময় এনোচ এনকোয়ির সাথে বর্ণবৈষম্যমূলক আচরণ করেছেন স্মিথ।

গত বছরের ডিসেম্বরে ডুমিসা এনটাসেবেজার নেতৃত্বাধীন এসজেএন কমিশন ২৩৫ পৃষ্ঠার এক প্রতিবেদনে এসব অভিযোগ তুলেছিল।

তবে অ্যাডভোকেট এনগোয়াকো মায়েনেতিয়ে ও মাইকেল বিশপের কমিটি পর্যাপ্ত তথ্য-প্রমাণ না থাকায় এসব অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন স্মিথকে।

তদন্ত শেষে এক বিবৃতিতে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারপার্সন লাওসন নাইডু বলেন, ‘স্বচ্ছতার সাথে পুরো বিষয়টি বিবেচনা করা হয়েছে। অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে স্পর্শকাতর এই বিষয় নিয়ে কাজ করেছে সিএসএ। প্রতিটি পদক্ষেপে এবং স্তরে সতর্কতার সাথে স্বচ্ছতা বজায় রাখা হয়েছে। সমস্ত প্রক্রিয়া শেষে নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছে স্মিথ।’

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //