শ্রীলঙ্কার কাছে হারল অস্ট্রেলিয়া

প্রথম ম্যাচে ৩০০ ছুঁয়েও জিততে পারেনি শ্রীলঙ্কা। খুনে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের কাছে হারতে হয়েছিল তাদের। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে পুঁজিটা ছিল গড়পড়তার চেয়েও কম। তবে এবার আর হারের বিষাদে পড়তে হলো না লঙ্কানদের। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে বোলারদের দারুণ বোলিংয়ে ১৯ রান খরচায় অস্ট্রেলিয়ার শেষ পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে ডাকওয়ার্থ-লুইস-স্টার্ন পদ্ধতিতে ২৬ রানের জয় পেয়েছে দলটি। সিরিজে ফিরিয়েছে ১-১ সমতা।

লঙ্কানদের জন্য ম্যাচের আগেই ছিল এক দুঃসংবাদ। প্রথম ওয়ানডেতে ব্যাটে-বলে দারুণ পারফর্ম করা ওয়ানিন্দু হাসরাঙ্গাকে চোটের কারণে হারায় লঙ্কানরা। চোট সমস্যা ছিল অজিদেরও। মার্কাস স্টয়নিস ও অ্যাশটন অ্যাগারকে গতকাল পায়নি সফরকারীরা।

প্রথম ওয়ানডের মতো গতকাল দ্বিতীয় ওয়ানডেটাও হয়েছে পাল্লেকেলেতেই। তবে প্রথম ওয়ানডের মতো উইকেটে রানের ফোয়ারা ছোটেনি কাল। মন্থর উইকেটে শুরু থেকেই রান তুলতে ভুগছিল শ্রীলঙ্কা। ৩৫ রানে হারায় পাথুম নিশাঙ্কা আর দানুষ্কা গুনাথিলাকাকে। তবে কুশল মেন্ডিস আর ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার ৬১ রানের জুটি সে ধাক্কা সামাল দেয়।

দারুণ শুরুর পর অবশ্য ৩০ এর ঘরে কাটা পড়েন মেন্ডিস আর ডি সিলভার দুইজনেই। এরপর লঙ্কানরা উইকেট হারিয়েছে নিয়মিত বিরতিতে। দাসুন শানাকার ৩৪ রানের ইনিংস আর শেষদিকে চামিকা করুণারত্নে, দুনিথ ওয়াল্লালাগে আর মাহিশ থিকশানার ছোট ছোট অবদানে ২২০ রানে পৌঁছায় লঙ্কানরা।

এরপরই শুরু বৃষ্টি। দুই ঘণ্টা অঝোর বর্ষণের পর খেলা যখন ফিরল মাঠে, তখন অস্ট্রেলিয়ার সামনে লক্ষ্যটা দাঁড়ায় ৪৩ ওভারে ২১৬ রানের। সে লক্ষ্যে অবশ্য অজিরা এগোচ্ছিল ভালোই। ওপেনিং জুটি ৭ ওভারে তুলে ফেলে ৩৯ রান।

শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যানরা ভালো শুরুর পর ইনিংস বড় করতে পারেননি এদিন। অস্ট্রেলিয়াও পড়ে একই সমস্যায়। ১৪ রানে অ্যারন ফিঞ্চ ফেরার পর ডেভিড ওয়ার্নার খেলেছেন ৩৭ রানের ইনিংস। এরপর স্টিভেন স্মিথ ২৮ আর ট্রাভিস হেড করেন ২৩ রান। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট খুইয়ে এক পর্যায়ে ১৩২ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বসে অস্ট্রেলিয়া।

তবে দলটির আশা তখনো ছিল, আগের ম্যাচের নায়ক ম্যাক্সওয়েল যে ছিলেন তখনো। ২৫ বলে ৩০ রানের ইনিংসে দলকে জয়ের দিকে এগিয়েও নিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি। তবে দলীয় ১৭০ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরেন তিনি। লঙ্কান বোলারদের ম্যাচে ফেরার শুরু তখনই। এরপর শেষ ১৯ রানে দলটি খোয়ায় ৫ উইকেট। তাতে অনাকাঙ্ক্ষিত একটা রেকর্ডও গড়ে ফেলেছে দলটি। ১৯৯৮ সালের পর রান তাড়ায় সবচেয়ে কম রানে শেষ ৫ উইকেট খোয়ানোর ‘কীর্তি’ গড়ল অজিরা।

তাতেই ২৬ রানের জয়ে শ্রীলঙ্কা ফেরে সিরিজে। পাঁচ ম্যাচের সিরিজে এখন ১-১ সমতা। সিরিজের পরের ম্যাচ মাঠে গড়াবে আগামী রবিবার।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //