নতুন পে-স্কেল ঘোষণা: সরকারি কর্মচারীদের জীবন যেন পান্নালালের গান

ফাইল ছবি।

ফাইল ছবি।

নতুন পে-স্কেল ঘোষণা, বেতন বৃদ্ধি, বেতন বৈষম্য দূর করাসহ বেশ কিছু দাবিতে সরব রয়েছেন প্রজাতন্ত্রের নিম্ন গ্রেডের কর্মচারীরা। দাবি-দাওয়া আদায়ের লক্ষ্যে মাঠের আন্দোলনেও সক্রিয় ছিলেন তারা। বর্তমান করোনা পরিস্থিতে সে আন্দোলন সীমাবদ্ধ রেখেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। 

সম্প্রতি সরকারি কর্মচারীদের দাবি-দাওয়া নিয়ে কাজ চলছে- একজন প্রতিমন্ত্রীর এমন কথায় চাঙ্গা হয়ে ওঠেন চাকরিজীবীরা। তবে এরপরই কর্মচারীদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার নির্দেশিকা যথাযথ অনুসরণ করা হচ্ছে কিনা তা মনিটরিং করতে কমিটি করে দেয় সরকার।

এছাড়া জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়ে যাওয়ার বিবেচনায় সরকারি চাকুরীজীবিদের বেতন বাড়ানোর দাবি উঠলেও নতুন পে-স্কেল (বেতন-কাঠামো) আপাতত হচ্ছে না বলে জানিয়ে দেয় অর্থ মন্ত্রণালয়।

ফেসবুক থেকে নেয়া।

এমন পরিস্থিতে পান্নালাল ভট্টাচার্য-এর বিখ্যাত গানের সাথে নিম্ন গ্রেডের সরকারি কর্মচারীদের জীবনের মিল আছে বলে মনে করছেন কেউ কেউ। সামাজিক মাধ্যমে একজন লিখেছেন-
আমার সাধ না মিটিল
আশা না পুরিল
সকলি ফুরায়ে যায় মা...শিল্পী

পান্নালাল ভট্টাচার্য কন্ঠে গাওয়া বিখ্যাত এই গানের সাথে সরকারের ২০ গ্রেডের কর্মচারীদের জীবনের হুবহু মিল আছে...? ভালো থাকুক বিবেকবান মানুষগুলো যারা মানুষের জীবনের চাহিদা নির্ধারণ করে...?

এই পোস্টে একজন মন্তব্য করে লিখেছেন- তোমার যত স্বাদ আছে ঠিকই একদিন মিটাবেন সেই হলেন মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিন। এই দুনিয়াতে তোমার সাধ মিটবে না।

অন্য একজন লিখেছেন-২০১৫ সালে পে স্কেল ঘোষণার সময় ১১-২০ গ্রেডের কর্মচারীদের সংগঠনগুলো একটু তৎপর হলে আজকের এই বিশাল বৈষম্যের গ্যাঁড়াকলে পড়তে হতো না।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //