মা হচ্ছি জেনে আমার জামাই মহা টেনশনে পড়ে যায়: মাহি

বিয়ের ঠিক এক বছরের মাথায় অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর জানিয়েছেন ঢাকাই সিনেমার সফল চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। আপাতত জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ সময় পার করছেন তিনি। পরিবারের আদর যত্নে দিন কাটছে তার। তবে স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর শোনার পর থেকেই টেনশনে আছেন নায়িকার স্বামী কামরুজ্জামান সরকার রাকিব।

একটি গণমাধ্যমকে মাহি জানান, মা হতে যাচ্ছি, জানার পর থেকেই লাফালাফি শুরু করে দিয়েছি। আর খবরটি শুনে তো আমার জামাই (কামরুজ্জামান সরকার রাকিব) মহা টেনশনে পড়ে যায়। আমি হুটহাট লাফ দিয়ে সিঁড়ি দিয়ে উঠি, শুটিংয়ে গেলেও দৌড়ঝাঁপের দৃশ্যের শুটিং করি- এগুলো নিয়েই সে খুব টেনশনে।

নায়িকা জানান, কোনোরকম নড়াচড়া করতে দিচ্ছেন না বাসার লোকজন। বাসা থেকে বের হওয়াও নিষেধ। এখন তিন মাস অন্তঃসত্ত্বা। সবকিছু ঠিক থাকলে ছয়-সাত মাসের মধ্যেই মা হবো।

এর আগে গত সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাতে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর জানিয়ে ফেসবুক স্ট্যাটাসে মাহি লেখেন, আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন সবাই? আমি তো আমার জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ সময়গুলো পার করছি। দিনরাত কীভাবে চলে যাচ্ছে টেরই পাচ্ছি না। প্রচণ্ড আদর-যত্নে দিনগুলো কেটে যাচ্ছে। কারণ, আমি আল্লাহর অশেষ রহমতে মা হতে যাচ্ছি, ইনশাআল্লাহ। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

গেল বছরের ১৩ সেপ্টেম্বর গাজীপুরের সরকার পরিবারের অন্যতম সদস্য কামরুজ্জামান সরকার রাকিবের (সোশ্যাল মিডিয়ায় রাকিব সরকার) সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন মাহিয়া মাহি। তার স্বামী পেশায় একজন ব্যবসায়ী এবং রাজনীতিবিদ।

রাকিবকে স্বামী হিসেবে পেয়ে স্বপ্নপূরণ হয়েছে মাহির। স্বামীকে নিয়ে ওমরাহ করে এসেছেন এই নায়িকা। প্রায়ই বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যান তারা। কখনও বন্ধুদের সাথে, আবার কখনও শুধু তারা দুজনে। সব মিলিয়ে দারুণ জমে উঠেছে মাহি-রাকিবের দাম্পত্য জীবন।

বিভিন্ন সময় সোশ্যাল মিডিয়ায় মাহির করা বিভিন্ন পোস্ট থেকে স্পষ্ট বোঝা যায়, বিয়ের পর স্বামীকে নিয়ে বেশ সুখেই আছেন তিনি। এই দম্পতির ভালোবাসার নমুনা প্রতিনিয়ত দেখছে নেটিজেনরা।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //