ম্যাজিস্ট্রেটের বিরুদ্ধে যৌতুকের মামলা

নীলফামারীর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ রানার বিরুদ্ধে যশোরে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা হয়েছে।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের আড়পাড়া গ্রামের ইকরামুল হকের মেয়ে ফারজানা নাসরিন বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন।

যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুদ্দিন হোসাইন অভিযোগটি আমলে নিয়ে আসামির প্রতি সমন জারির আদেশ দিয়েছেন। অভিযুক্ত মাসুদ রানা পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার আফতাব নগর গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আসামি মাসুদ যৌতুক লোভী। ২০১৯ সালের ২১ জুন তিনি শামসি নাহিদ অঞ্চা নামে এ মেয়েকে বিয়ে করেন। পরবর্তীতে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন করে ওই বছরের ৪ নভেম্বর তাকে তালাক দেন। মাসুদ রানার সাথে ফারজানা নাসরিনের মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। আগের বিয়ে গোপন করে পারিবারিকভাবে চলতি বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি তাকে বিয়ে করেন। বিয়ের সময় মাসুদ রানাকে ৫ লাখ টাকার মালামাল ও ২ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার দেয়া হয়। কিছুদিন যেতে না যেতে মাসুদ রানা ঢাকার পূর্বাচলে প্লট কেনার জন্য তার স্ত্রীর কাছে ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। যৌতুকের ৫ লাখ টাকা মাসুদ রানাকে দেয়া হয়। বাকি ৫ লাখ যৌতুকের জন্য মাসুদ রানা তার স্ত্রীর উপর নির্যাতন শুরু করেন। এক মাস আগে মাসুদ রানা শ্বশুরবাড়ি এসে যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে মারপিট করে চলে যান। এরপর বেশ কয়েকবার মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি আদালতে এ মামলা করেছেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh