তিন বছরেও চার লেন হয়নি কুমিল্লা-নোয়াখালী মহাসড়ক

অনুমোদনের তিন বছরেও চার লেন হয়নি কুমিল্লা-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কের লালমাই উপজেলার বাগমারা বাজার, লাকসামের মিশ্রী, জংশন ও বাইপাস অংশের ৭ কিলোমিটার সড়ক।

জানা যায়, আপাতত লালমাই উপজেলা অংশের বাগমারা স্কুল পুকুর এলাকা থেকে লালমাই থানা পর্যন্ত ২ কিলোমিটার সড়কের ২ লেনের উন্নয়ন কাজ করা হবে। এরমধ্যে বাগমারা বাজার অংশের ৬শ মিটার সড়ক ঢালাই হবে। এই কাজ করতে মধ্য বাজারের পশ্চিম পাশের মাত্র ৫০ ফিট জমি অধিগ্রহণ করতে হবে। বাজার অংশের দুপাশে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনও নির্মাণ করা হবে। আর লাকসামের ফয়েজগঞ্জ ব্রিকফিল্ড থেকে দক্ষিণ বাইপাস পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার সড়ক আপাতত ২ লেনে উন্নয়ন কাজ করা হবে। এরমধ্যে ৪.২০০ কিলোমিটার সড়কে ঢালাই হবে। এছাড়া লালমাইয়ের হরিশ্চরের ৪ লেনের ৩শ মিটার সড়কেও ঢালাই হবে।

এদিকে, লালমাই দক্ষিণ বাজার থেকে লাকসামের ছন্দনা পর্যন্ত ১৭.১০০ কিলোমিটার সড়কের ৪ লেনের উন্নয়ন কাজ প্যাকেজ-২ এর মাধ্যমে সম্পন্ন করার কথা রয়েছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান রানা বিল্ডার্স ও হাছান টেকনো বিল্ডার্স লিমিটেড। এই অংশের সম্ভাব্য ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩২ কোটি টাকা। ইতোমধ্যে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ক অর্ডার হাতে পেয়ে কাজ শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

কুমিল্লা সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রকৌশলী মাজহারুল হক জানান, ঈদুল আযহার পূর্বে কুমিল্লা-নোয়াখালী সড়কের বাগমারা বাজার ও লাকসামের ঝুকিপূর্ণ অংশে ইটের সলিং করে মেরামত করা হয়েছে। চলতি সপ্তাহ থেকেই বাগমারা অংশে ২ লেনের উন্নয়ন কাজ শুরু হবে। ২ লেনের উন্নয়ন দ্রুত গতিতে চলবে।

অনুমোদিত উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা (ডিপিপি) অনুযায়ী ৫৯ কিলোমিটার সড়কের প্রাক্কলিত ব্যয় ২ হাজার ১৭০ দশমিক ৭৮ কোটি টাকা। তার মধ্যে ভূমি অধিগ্রহণের জন্য বরাদ্দ ১ হাজার ১৪০ কোটি টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়নকাল ২০২০ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত। সড়কের কুমিল্লার অংশে রয়েছে ৪৫ কিলোমিটার এবং নোয়াখালী অংশে রয়েছে ১৪ কিলোমিটার। সড়কটির বর্তমান প্রশস্থতা ৪০ থেকে ৪৫ ফুট। চার লেনে তা ৯০ ফুটে উন্নীত হবে।

জানা যায়, মোট তিনটি ধাপে কাজটি হচ্ছে। প্রথম ধাপে কুমিল্লার টমছম ব্রিজ থেকে লালমাই পর্যন্ত এর অগ্রগতি ৪৭ শতাংশ। দ্বিতীয় ধাপে লালমাই থেকে লাকসামের ছন্দনা পর্যন্ত। জমি অধিগ্রহন, মামলাসহ বিভিন্ন জটিলতায় এ অংশে এখনো কাজ শুরু হয়নি। তৃতীয় ধাপে লাকসামের ছন্দনা থেকে নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ চৌরাস্তা পর্যন্ত।

উল্লেখ্য ২০১৭ সালের নভেম্বরে জাতীয় অর্থনৈতিক কাউন্সিলের নির্বাহী কমিটির (একনেক) এক সভায় তৎকালীন পরিকল্পনামন্ত্রী ও বর্তমান অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল এমপির প্রচেষ্টায় ‘কুমিল্লা (টমছম ব্রিজ) থেকে নোয়াখালী (বেগমগঞ্জ) আঞ্চলিক মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh