খাগড়াছড়িতে প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ৭

খাগড়াছড়িতে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) ভোরে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী ও আকবর শাহ এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে খাগড়াছড়ি সদর থানার পুলিশ। বাকি দুই আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মোর্শেদ আলমের আদালতে ভুক্তভোগীকে হাজির করে পুলিশ। আদালত তার ২২ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণ শেষে পরিবারের জিম্মায় ছেড়ে দেয়ার আদেশ দেন। পুরে পুলিশি প্রহরায় তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়া হয়।

পুলিশ জানায়, বুধবার মধ্যরাত আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার গোলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বলপেয়ে আদম এলাকায় দরজা ভেঙে বাড়িতে ঢুকে এক প্রতিবন্ধী নারীকে (২৬) গণধর্ষণ করা হয়। এ সময় অভিযুক্তরা বাড়ির মালিক, তার স্ত্রী ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মেয়ের হাত-মুখ বেঁধে ফেলে। পরে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে  ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে তিন ভরি স্বর্ণ, নগদ টাকা, মোবাইল ফোন লুট করে বাইরে থেকে বাড়িতে দরজা বন্ধ করে চলে যায়। পরে প্রতিবেশীরা এসে তাদের উদ্ধার করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ধর্ষণের শিকার নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালের ভর্তি করে।

ধর্ষণের শিকার নারীর পিতা জানান, অজ্ঞাত ৯ ব্যক্তি আমরা বাড়িতে ঢুকে আমার মেয়ের উপর নির্যাতন চালায়। এ সময় তারা আমাদের হাত-মুখ বেঁধে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। তারা রাত ২টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত আমাদের ওপর নির্যাতন চালায়। 

প্রতিবেশী তপন জ্যোতি চাকমা জানান, তাদের চিৎকার শুনে আমরা ভোর বেলায় এসেছি। এ সময় প্রত্যেকের হাত-পা-মুখ বাঁধা ছিল। পুলিশকে খবর দেয়ার পর তাদের উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার পরদিন বৃহস্পতিবার ভিকটিমের মা বাদী হয়ে খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকে পুলিশ আসামিদের ধরতে অভিযান শুরু করে। 

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রশীদ জানান, আমরা এখন পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেফতার করেছি। চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি দুই আসামিকে ধরতে অভিযান এখনো অব্যাহত রয়েছে। গ্রেফতার করার পর তাদের আদালতে তোলা হবে।

খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ আজিজ আহমেদ জানান, বিষয়টি আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। খুব দ্রুত সব আসামিকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh