বান্দরবানে সাবেক ইউপি সদস্যকে গুলি করে হত্যা

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় সাবেক ইউপি সদস্য সাউপ্রু মারমাকে (৫৫) গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) রাতে উপজেলা সদরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহত সাউপ্রু মারমা (৫৫) সদর উপজেলা সদর ইউনিয়নে নতুন পাড়ার বাসিন্দা। তিনি জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী বলে জানা গেছে।

রোয়াংছড়ি থানার ওসি (তদন্ত) মনির হোসেন জানান, রাত সাড়ে আটটার দিকে কে বা কারা এক পাড়াবাসীকে গুলি করে হত্যা করেছে। গুলিবিদ্ধি হয়ে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

তবে এ ঘটনার জন্য সন্তু লারমা নেতৃত্বাধীন জেএসএস মূল দলকে দায়ী করেছেন সংস্কারপন্থী হিসেবে পরিচিত জেএসএস (এমএন লারমা) দলের বান্দরবান জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক উবামং মারমা।

তিনি জানান, রাত সাড়ে আটটার দিকে ১২ জনের একটি সশস্ত্র গ্রুপ নতুনপাড়ায় এসে সাউপ্রু এবং মেঅং মারমাকে গুলি করে তারা পালিয়ে যায়। সশস্ত্র গ্রুপের তিন সদস্য খুব কাছ থেকে সাউপ্রু মারমাকে গুলি করে। এ সময় আরেক কর্মী মেঅং মারমা পালিয়ে গেলে গুলি থেকে রক্ষা পায়।

উবামং মারমা আরো জানান, সকালে গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারি জেএসএস মূল দলের একটি সশস্ত্র গ্রুপ আমাদের দলের কর্মীদের হত্যা করার জন্য পরিকল্পনা করা হচ্ছে। তারা রোয়াংছড়ি সদর উপজেলার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। দলের সকল কর্মীদের সতর্কভাবে চলাফেরার করার জন্য সাবধানতা নির্দেশ দেয়ার পর রাতেই গুলির ঘটনা ঘটে।

গুলি করার ঘটনার দশ মিনিট আগেও সতর্কভাবে থাকার বিষয়ে নিহত সাউপ্রু মারমা সাথে তার কথা হয়েছে বলে জানান তিনি।

এর আগে ২৮ সেপ্টেম্বর একই পাড়ার বাসিন্দা উথোয়াই য়ই মারমা (৫২) নামে জেএসএস মূল দলের এক সমর্থক নিখোঁজ হন। এখনও তার হদিস পাওয়া যায়নি। জেএসএস (এমএন লারমা) দলের কর্মীরা তাকে অপহরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছিলেন পরিবারের সদস্যরা। 

অন্যদিকে, ১০ অক্টোবর বান্দরবান সদর উপজেলা রাজবিলা ইউনিয়নে জেএসএস মূল দলের আরেক সমর্থক ও পল্লী চিকিৎসক বাচমং মারমাকে (৪১) গুলি করে হত্যা করে একদল সশস্ত্র গ্রুপ।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh