পদ্মা সেতুর পৌনে ৬ কিলোমিটার দৃশ্যমান

মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের ১ ও ২ নম্বর পিলারে পদ্মা সেতুর ৩৮ নম্বর স্প্যান বসানো হয়েছে। স্প্যানটি বসানোয় সেতুর প্রায় পৌনে ৬ কিলোমিটার দৃশ্যমান হলো। বাকি তিনটি স্প্যানও বিজয় দিবসের আগেই বসানোর কথা রয়েছে।

এর আগে, গত ১২ নভেম্বর সেতুর ৯ ও ১০ নম্বর পিলারের ওপর ৩৭তম স্প্যান বসানো হয়। এখন ৩৮তম স্প্যান বসানোর কারণে সেতুর দৃশ্যমান হলো ৫ হাজার ৭০০ মিটার।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মোহাম্মদ আব্দুল কাদের জানান, ৩৮তম স্প্যানটি বসনো হয়েছে, বাকি থাকলো আর ৩টি স্প্যান। এ মাসে মধ্যেই আরো একটি আর বাকি দুইটি স্প্যান আগামী মাসের প্রথম দিকে বসানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

বাকি স্প্যানগুলো- ২৩ নভেম্বর পিয়ার ১০ ও ১১ নম্বরে ৩৯তম স্প্যান ‘২-ডি’, ২ ডিসেম্বর পিয়ার ১১ ও ১২ নম্বরে ৪০তম স্প্যান ‘২-ই’ ও ১০ ডিসেম্বর সর্বশেষ ৪১ নম্বর স্প্যান ‘২-এফ’ বসবে ১২ ও ১৩ নম্বর পিয়ারের ওপর।

২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্ট্রিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। পদ্মা সেতুতে ৪২টি পিলারের ওপর বসানো হবে ৪১টি স্প্যান। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সেতুর জাজিরা প্রান্তে ৩৭-৩৮ নম্বর পিয়ারে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে সেতু দৃশ্যমান হয়।

মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) ও নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন। সেতুর ওপরের অংশে যানবাহন ও নিচ দিয়ে চলবে ট্রেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh