ক্ষুধার্তদের জন্য ‘খুশির ঝুড়ি’

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া শহরের বিভিন্ন দোকানে এক অভিনব ঝুড়ির দেখা মিলছে। ঝুড়িতে রাখা আছে বিভিন্ন ধরনের খাদ্যসামগ্রী। অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষ এ ঝুড়ি থেকে খাবার নিতে পারবেন। ‘খুশির ঝুড়ি’ যেনো ক্ষুধার্ত এবং অসহায় মানুষের ত্রাণকর্তা।

কাঠালিয়া পাইলট স্কুলের সামনে সিয়াম কসমেটিকস এবং উপজেলা পরিষদের সামনের কিছু দোকান ছাড়াও শহরের বিভিন্ন স্থানে এ ঝুড়ির দেখা মিলেছে। কাছে গিয়ে দেখা গেল ঝুড়িটির সঙ্গে একটি ফেস্টুন যুক্ত করা। সেখানে লেখা ‘খুশির ঝুড়ি’ অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য খুশির ঝুড়ি। অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষ এই ঝুড়ি থেকে খাবার নিতে পারবেন। আপনি চাইলে এই দোকান থেকে খাবার কিনে ঝুড়িতে রাখতে পারেন।’

খুশির ঝুড়ির ভেতরে রয়েছে পাউরুটি, বিস্কুট, কেক, ওয়াফার, কলাসহ বিভিন্ন খাদ্যসামগ্রী। উপজেলা পরিষদের সামনের ওই দোকানের ঝুড়িটি সম্পর্কে দোকান মালিক শাহারুম হোসেন বলেন, ‘এ ঝুড়ি থেকে যেকোনো অসহায় ও ক্ষুধার্ত মানুষ যেকোনো সময় যেকোনো খাবার নিতে পারবেন বিনামূল্যে। আর যদি কোনো স্বহৃদয়বান ব্যক্তি দোকান থেকে কিছু কেনার সময় ঝুড়িটিতে অসহায়দের জন্য খাবার রাখতে চান, চাইলে সেটাও করতে পারবেন। প্রতিদিন অনেকেই ঝুড়িটি দেখে নিজের ইচ্ছায় খাবার কিনে দিচ্ছেন আর অসহায় মানুষ যখন দোকানে কিছু চাইতে আসছেন, তখন ঝুড়ি থেকে খাবার দিচ্ছি।’

জানা যায়, কাঁঠালিয়ায় এই খুশির ঝুড়ির উদ্যোগ নিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দুরন্ত ফাউন্ডেশন কাঁঠালিয়া উপজেলা শাখা।

দুরন্ত ফাউন্ডেশন কাঁঠালিয়া শাখার সদস্য সচিব সোয়েবুজ্জামান তিতাস ও সদস্য সাদিয়া জাহান মনি বলেন, খুশির ঝুড়ি অসহায় মানুষের মধ্যে খুশি ছড়াচ্ছে। কাঁঠালিয়ায় ভিক্ষুক, রিকশাচালকসহ, ক্ষুধার্ত মানুষ প্রতিদিন খুশির ঝুড়ি থেকে খাবার নিয়ে ক্ষুধা নিবারণ করতে পারছেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh