ঘুষ ছাড়া ফাইল নড়ে না প্রকৌশলীর দফতরে

ছবি: লালমনিরহাট প্রতিনিধি

ছবি: লালমনিরহাট প্রতিনিধি

লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার প্রকৌশলীর দফতরে ঘুষ ছাড়া ফাইল নড়ে না বলে ঠিকাদারদের অভিযোগ। বিলের স্মারক নম্বর দিতেও অন্তত পাঁচশত টাকা ঘুষ গুনতে হয়।

গ্রামীন হাট-বাজার উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার সাপ্টিবাড়ি হাটের চারতলার উপর দুইতলা নির্মাণ কাজের দরপত্র আহবান করে প্রকৌশল দফতর। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানটির প্রতিনিধি হিসেবে কাজটি তদারকি করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম। 

প্রায় দুই কোটি টাকা ব্যয়ে সেই নির্মাণ কাজটি প্রায় ৫০ শতাংশ সম্পন্ন হলে তৃতীয় দফায় বিলের আবেদন করেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। সেই বিলের কাগজপত্র নিয়ে উপজেলা প্রকৌশলীর দফতরে যান রফিকুলের ভাতিজা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ হযরত আলী। বিলের আবেদনে স্মারক নম্বর দেয়ার জন্য ফাইলটি অফিস সহকারী নুরজাহান বেগম জেবির কাছে পাঠানো হয়। তিনি টাকা ছাড়া স্মরক নম্বর দেবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। বাধ্য হয়ে প্রথমে দুইশত টাকা প্রদান করে স্মরক নম্বর বসানোর অনুরোধ করেন। ঘুষ কম হওয়ায় টাকা ছুড়ে ফেলে দেন নুরজাহান। শেষ পর্যন্ত পাঁচশত টাকা ঘুষ নিয়ে তবেই বিলে স্মরক নম্বর বসিয়ে ফাইলটি অগ্রগামী করেন তিনি। 

হযরত আলী বলেন, স্মারক নম্বর বসাতে গেলে নুরজাহান মিষ্টি খাওয়ার আবদার করেন। তাই তাকে প্রথমে দুইশত টাকা দিয়েছিলাম। কম হওয়ায় সেই টাকা আমার পায়ে ছুড়ে মারেন ও আমাকে ভৎসনা করেন। অফিসারদের লাখ টাকা ঘুষ দেন আর আমাদের বেলায় পাঁচশত /হাজার টাকা বের হয় না- বলে ভৎসনা করেন।

এদিকে নুরজাহান ঘুষ নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ঘুষ নয়, বিল তুলেছেন তাই মিষ্টি খাওয়ার জন্য টাকা দিয়েছেন।

নুরজাহান বেগমের ঘুষ গ্রহণের ছবিটি শনাক্ত করে আদিতমারী উপজেলার প্রকৌশলী সোহেল রানা বলেন, ফাইল ছুড়ে ফেলে টাকা আদায় করাটা দুঃখজনক। তাকে সতর্ক করা হবে। তিনিও নিউজ প্রকাশ না করতে অনুরোধ করেন।

লালমনিরহাট স্থানীয় প্রকৌশল অধিদফতরের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফ আলী খান বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে জনগণের সেবা করার জন্যই সরকার বেতন দেন। এরপরও ফাইল আটকিয়ে মিষ্টি খাওয়ার জন্য টাকা নেয়া অন্যায়। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh