পাটুরিয়াতেও জনস্রোত, ঠাসাঠাসি করে ফেরিতে পার হচ্ছে যাত্রী

ফেরি চালু হচ্ছে ধাক্কাধাক্কি করে ফেরিতে উঠছেন যাত্রীরা। ছবি : সংগৃহীত

ফেরি চালু হচ্ছে ধাক্কাধাক্কি করে ফেরিতে উঠছেন যাত্রীরা। ছবি : সংগৃহীত

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে দিনে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে আজ সোমবার (১০ মে) সকাল থেকে ঈদ উপলক্ষে ঘরমুখী যাত্রীর চাপ দেখা যাচ্ছে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে এই চাপও বাড়ছে। লাশ ও রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্স এবং জরুরি পণ্যবাহী গাড়ি ফেরিতে ওঠার সময় যাত্রীরাও হুড়োহুড়ি করে লাফিয়ে উঠে পড়ছেন।

পাটুরিয়া ঘাটসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সকাল থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত সাতটি ফেরিতে যাত্রী ও জরুরি যানবাহন পারাপার করা হয়েছে। 

সকালে দেখা গেছে, যাত্রীরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করছেন নদী পারের জন‌্য। যখনই কোনো ফেরি চালু হচ্ছে ধাক্কাধাক্কি করে ফেরিতে উঠছেন তারা। সেইসাথে মোটরসাইকেল ও ছোট গাড়িও পার হয়ে যাচ্ছে।

সকাল ৯টার পর পাটুরিয়া ৪ নম্বর ঘাট থেকে চন্দ্রমল্লিকা নামে একটি ফেরি লাশবাহী গাড়ি ও অ‌্যাম্বুলেন্স নিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে। এ ফেরিতে ঘাট এলাকায় অপেক্ষারত শতাধিক যাত্রী ফেরিতে উঠতে পেরেছেন। এদিকে সকাল ৯টা ৫০ মিনিটের দিকে ২ নম্বর ঘাট থেকে হাসনাহেনা নামের একটি ফেরি অ‌্যাম্বুলেন্স ও জরুরি পরিষেবার গাড়ি নিয়ে দৌলতদিয়া ঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। এ ফেরিতেও যাত্রীরা গাদাগাদি করে পার হন। 

বেলা ১১টার দিকে পাটুরিয়ার তিন ও পাঁচ নম্বর ঘাট এলাকায় কয়েক শ যাত্রীকে নদী পারের অপেক্ষায় থাকতে দেখা যায়। এসব যাত্রী দীর্ঘ সময় আটকে থাকায় প্রচণ্ড অস্থির হয়ে উঠেছেন। শৌচাগার ও খাবার হোটেলের অভাবে নারী ও শিশু যাত্রীদের ভোগান্তি  বেশি লক্ষ করা যাচ্ছে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিটিসি) আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম মো. জিল্লুর রহমান বলেন, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে। ঘাট এলাকায় লাশবাহী গাড়ি ও অ‌্যাম্বুলেন্স আসলে তখন জরুরি পরিষেবার আওতায় এগুলো পার করা হয়। আর এ সুযোগে কিছু যাত্রী ফেরিতে উঠে পড়ে।

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ কবির বলেন, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে যাত্রী পারাপারে সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকলেও যখন অ্যাম্বুলেন্স ও জরুরি পণ্যবাহী (পচনশীল পণ্য, দুধ, শিশুখাদ্য, ওষুধ) গাড়ি ফেরিতে ওঠানো হয়, তখনই যাত্রীরা ফেরিতে উঠে পড়েন। কোনো বাধাতেই যাত্রীদের ফেরানো যাচ্ছে না। ফেরি আসার পরই তারা তাড়াহুড়ো করে ফেরিতে উঠে পড়ছেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh