গণপরিবহন বন্ধ থাকায় চরম বিপাকে ঘরমুখো যাত্রীরা

ঈদ যতোই ঘনিয়ে আসছে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে ঘরমুখো মানুষ ও যানবাহনের চাপ ততোই বেড়েছে। ট্রাক, মাইক্রোবাস, পিকআপভ্যানসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগত গাড়িতে গাদাগাদি করে বাড়ি ফিরছেন ঘরমুখো মানুষ। ফলে করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। 

গণপরিবহন বন্ধ থাকায় যাত্রীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে যাত্রীরা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছেন। দীর্ঘ সময়েও গাড়ি না পেয়ে অনেকে হেঁটেই গন্তব্যের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন। 

নওগাঁর আমিনুল জানান, আমি ঢাকাতে একটি কারখানায় কাজ করি। দুই ঈদেই বাড়িতে যাই। আমার বাচ্চারা তাকিয়ে আছে বাবা আসবে নয়া জামাকাপড় নিয়ে। এলেঙ্গা পর্যন্ত পিকাপে এসেছি এখন ওপারে যেতে গাড়ি পাচ্ছি না।

রাজশাহীর তারা বানু বলেন, আমি গাজীপুর থেকে এসেছি। এলেঙ্গা বাজারে নামিয়ে দিয়েছে টাক চালক। কিছু হেঁটে এসেছি বস্তা মাথায় নিয়ে এখন আর পা চলছে না। পিঠ রোদে পুরে গেছে। এখন গাড়ির অপেক্ষায় আছি।


ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক দিয়ে নানা পন্থায় কয়েকগুণ বেশি ভাড়ায় বাড়ি ফিরছেন মানুষ। দূরপাল্লার যানবাহন চলাচলে বিধিনিষেধ থাকায় খোলা ট্রাক, পণ্যবাহী ট্রাক, মোটরসাইকেলসহ ব্যক্তিগত ছোট ছোট যানবাহনে গাদাগাদি করে বঙ্গবন্ধু সেতু পার হচ্ছেন তারা। বিকেল দূরপাল্লার বাস চলতে দেখা গেছে মহাসড়কে কোথাও। মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। এতে করে বেড়ে যাচ্ছে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি।

টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় জানান, মহাসড়কের ৫৪টি জায়গায় পুলিশের চেকপোস্ট রয়েছে। 

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh