নরসিংদীতে সংঘর্ষ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩

নরসিংদীর রায়পুরার চরাঞ্চলে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে তিনজনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো অন্তত ৫০ জন। আহতদের রায়পুরা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স ও নরসিংদী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। 

সোমবার (১৭ মে ) রাতে রায়পুরার পাড়াতলী ইউনিয়নের কাচারিকান্দি গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, কাচিকান্দি গ্রামের হবি মিয়ার ছেলে ইয়াছিন মিয়া (১৩), আশরাফ উদ্দিনের ছেলে শহিদ মিয়া (২৮) ও নুরু মিয়ার ছেলে শফিকুল ইসলাম (২৫)। সংঘর্ষের ঘটনায় চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেন, রায়পুরা থানার দায়িত্বরত ডিউটি অফিসার এএসআই পিংকি দাস।

পুলিশ ও গ্রামবাসী জানায়, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে পাড়াতলী ইউপি সদস্য শাহ আলমের সাথে সাবেক সদস্য ফজলুল হকের ছেলে শাহ আলমের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। এর জের ধরে সোমবার রাতে দুই পক্ষের সমর্থকেরা টেঁটা, বল্লম ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় কয়েকজন গুলিবিদ্ধসহ উভয় পক্ষের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হন। এর মধ্যে ইয়াসিন নামে এক কিশোর গুলিবিদ্ধ হয়। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় রায়পুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে রাতভর থেমে থেমে সংঘর্ষ চললেও  মঙ্গলবার সকালে (১৮ মে ) সকালে আবারো দুই গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে টেঁটা, বল্লম নিয়ে সংঘর্ষ বাধে এতে টেঁটাবিদ্ধ হয়ে শহিদ মিয়া ও চোখে গুলিবিদ্ধ হয়ে শফিকুল ইসলাম নামে আরো দুইজন নিহত হয়। এছাড়া সংঘর্ষে আহত হয় আরো ২০ জন।

পাহাড়তলী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম জানান, তাদের এই দীর্ঘদিনের বিরোধের কারণে এলাকায় একের পর এক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। আর এতে করে তাজা প্রাণগুলো ঝড়ে যাচ্ছে। বিরোধ মীমাংসার অনেকবার চেষ্টা করেও সমাধান করা সম্ভব হয়নি। 

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( অপরাধ) মোহাম্মদ রাসেল শেখ জানান, সংঘর্ষের খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ কাজ করছে। 

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh