রাজশাহী মেডিকেলের করোনা ইউনিটে আরো ১৪ জনের প্রাণহানি

করোনা আক্রান্ত এক রোগীকে রামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। ফাইল ছবি

করোনা আক্রান্ত এক রোগীকে রামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ও এর উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ছয়জন ও উপসর্গ নিয়ে আটজন মারা গেছেন।

গতকাল রবিবার (১১ জুলাই) সকাল ৯টা থেকে আজ সোমবার (১২ জুলাই) সকাল ৯টা পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

আজ সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মৃতদের মধ্যে নয়জন পুরুষ ও পাঁচজন নারী। এদের মধ্যে পাঁচজনের বয়স ৬১ বছরের ওপরে। এছাড়া ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চারজন ও ৩১ থেকে ৪০ বছরের একজন, ২১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন রয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, মৃতদের মধ্যে পাঁচজনের বাড়ি রাজশাহী জেলায়। এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইজন, নওগাঁর দুইজন ও নাটোরের চারজন ও পাবনা জেলার একজন রোগী রয়েছেন। মৃতদের পরিবারকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

রামেক পরিচালক বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫৮ জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে ২২৯ জন এবং সন্দেহভাজন ও উপসর্গ নিয়ে ২৮৮ জন ভর্তি রয়েছেন হাসপাতালটিতে। গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে ৪৫৪টি শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি ছিলেন ৫১৭ জন।

রামেকের দুই ল্যাবে করোনা পরীক্ষা ও শনাক্তের বিষয়ে তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে ২৮২টি নমুনা পরীক্ষায় ৮৩ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। মেডিকেল কলেজের পিসিআর মেশিনে ৩৭৪টি নমুনা পরীক্ষায় ১০৩ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। দুই ল্যাবের টেস্টে মোট ৫৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে ১৮৬ জনের করোনা পজিটিভ রেজাল্ট আসে।

পরীক্ষা বিবেচনায় রাজশাহীতে সংক্রমণের হার ২৬ দশমিক ৫৭ শতাংশ থেকে বেড়ে ২৯  দশমিক ৬৩ শতাংশে দাঁড়িছে। আর চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা শনাক্তের হার আবারও ২০ দশমিক ৪৮ শতাংশ থেকে বেড়ে ২৫ দশমিক ৫৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh