জরিমানার পরিবর্তে খাদ্য সহায়তা দিলেন ম্যাজিস্ট্রেট

নিম্নআয়ের মানুষদের জরিমানার পরিবর্তে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়। ছবি : কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

নিম্নআয়ের মানুষদের জরিমানার পরিবর্তে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়। ছবি : কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ায় সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ অমান্য করে চা দোকানীসহ নিম্নআয়ের মানুষদের জরিমানার পরিবর্তে খাদ্য সহায়তা দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছেন জেলা প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিরা।

গতকাল রবিবার (২৫ জুলাই) কুষ্টিয়া পৌরসভার বিভিন্ন স্থান ঘুরে এ খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়।

দেশে তৃতীয় ধাপে দেশব্যাপী লকডাউনের তৃতীয় দিনে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার পৌর এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় কিছু চায়ের দোকান, অটোচালকদের গাড়ি চালাতে বন্ধ রাখার জন্য ও লকডাউনের আদেশ মেনে চলতে উৎসাহিত করতে প্রচার চালানো হয়। এসময় ওই অটোচালক, চা দোকানী ও নিম্নআয়ের মানুষদের হাতে প্রত্যেকের কাছে খাদ্য সামগ্রী দিয়ে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেন এবং বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করেন।

ওইদিন সকাল থেকে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মহায়মিন আল জিহান ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সবুজ হাসানের নেতৃত্বে পৌর এলাকার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রায় অর্ধশতাধিক নিম্নআয়ের মানুষের হাতে এ খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়। প্রতিজনকে ১০ কেজি করে চাল, এক কেজি করে ডাল, আলু, পেঁয়াজ, তেল ও লবণ দেয়া হয়।


এ বিষয়ে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মহায়মিন আল জিহান বলেন, অটোচালকরা পেটের টানে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বের হয়েছে। তাই তাদের প্রথমেই জরিমানা করলে তারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তাই তাদের জরিমানা না করে লকডাউন কার্যকর করতে উৎসাহিত করাসহ তাদের এক সপ্তাহের খাদ্য সামগ্রী দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সবুজ হাসান বলেন, সরকার ঘোষিত চলমান বিধি-নিষেধ না মানায় চা-দোকানি ও নরসুন্দরসহ বিভিন্ন নিম্নআয়ের মানুষেরা মোবাইল কোর্টে শাস্তির মুখোমুখি হলেও কুষ্টিয়া জেলার ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলামের নির্দেশনা মোতাবেক মানবিক খাদ্য সহায়তা তুলে দেয়া হয়। একইসাথে করোনা সংক্রমণ বিবেচনায় তাদেরকে ঘরে ফিরে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়।

জেলা প্রশাসক সাইদুল ইসলাম জানান, করোনাভাইরাসজনিত রোগের সংক্রমণ হার বৃদ্ধি পাওয়ায় জেলা প্রশাসন চলমান বিধি-নিষেধ ও নির্দেশনাসমূহ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি জেলা পুলিশ সম্মিলিতভাবে জেলা শহর ও কুষ্টিয়া পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় সচেতনতামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছি। 

এসময় তিনি আরো জানান, কুষ্টিয়া জেলায় করোনার ক্রমবর্ধমান সংক্রমণ হার কমিয়ে আনতে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন, মাস্ক পরিধান নিশ্চিতকরণ ও সর্বোপরি চলমান বিধিনিষেধ মেনে চলতে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করছি। 

একই সাথে জরুরি খাদ্য সহায়তা পেতে ৩৩৩ নম্বরে এসএমএস করতেও অনুরোধ জানান তিনি।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //