খুলনায় গরুর চামড়া ১৫০-৫শ’ টাকা : দাম নেই ছাগল-খাসির!

খুলনায় গরুর চামড়া ১৫০-৫শ’ টাকা : দাম নেই ছাগল-খাসির

খুলনায় গরুর চামড়া ১৫০-৫শ’ টাকা : দাম নেই ছাগল-খাসির

ঈদুল আজহায় খুলনায় সাইজ ও মানভেদে প্রতিটি গরুর চামড়া ১৫০ থেকে ৫শ’ টাকা পর্যন্ত দামে বিক্রি হয়েছে। তবে, দাম ছিল না ছাগল বা খাসির চামড়ার। যে কারণে কোনো ব্যবসায়ীকে ছাগলের চামড়া কিনতে দেখা যায়নি। খুলনাঞ্চলে কাঁচা চামড়ার সব চেয়ে বড় বাজার শেখপাড়া চামড়া পট্টির ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, এবার চামড়ার দাম সামান্য বাড়লেও কাঙ্ক্ষিত দাম না হওয়ায় গত কয়েক বছরের মতোই মাদ্রাসা ও এতিমখানা কর্তৃপক্ষের মধ্যে ক্ষোভ রয়েই গেছে। অনেকেই মাদ্রাসার পক্ষ থেকে কঠোর পরিশ্রম করে এলাকা ঘুরে চামড়া সংগ্রহ করলেও কাঙ্ক্ষিত দাম পাননি। 

ব্যবসায়ীরা বলছেন, খুলনায় গত বছরের তুলনায় এ বছর কোরবানিতে গরুর চামড়ার দাম কিছুটা বেড়েছে। ট্যানারি মালিক ও আড়তদাররা গতবারের চেয়ে একটু বেশি দামে চামড়া কিনছেন। গরুর চামড়ার মান ও আকারভেদে ১৫০ থেকে ৫০০ টাকা বিক্রি হলেও ছাগল কিংবা খাসির চামড়ার কোনো দাম নেই। 

নগরীর ফজলুল উলুম মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মুফতি মাহবুবুর রহমান বলেন, চামড়ার দাম নেই বললেই চলে। তবে গত বছরের থেকে কিছুটা দাম বেশি। চামড়া তো গরু হিসেবে বড় ছোট আছে। আমরা গড়ে প্রতি পিস চামড়া ৫০০ টাকায় বিক্রি করেছি। গত বার যে হারে চামড়া বিক্রি হয়েছিল এবার সে হিসেবে প্রতি পিস চামড়া ৫০-৮০ টাকা বেশি। যশোরের একটি পার্টি এসে চামড়া নিয়ে গেছে। 

দারুল উলুম মাদ্রাসার শিক্ষক নাসির উদ্দিন বলেন, গত বছরের চেয়ে এবার নাম মাত্র চামড়ার দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। পিস প্রতি ৫০ টাকা দাম বেড়েছে।

খুলনার শেখপাড়া চামড়া পট্টির ইয়াসিন লেদারের ব্যবসায়ী মো আবু জাফর বলেন, গত বছর গরুর চামড়ার পিস যেটা ৩০০ টাকার ছিল, সেটা এ বছর ৩৫০ টাকা হয়েছে। গতবারের ৫০০ টাকার গরুর চামড়া ৬০০ টাকা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //