মোবাইল চুরির অভিযোগে আটক আওয়ামী লীগ নেতা

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার নীলাক্ষিয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সালেহ আহমেদ ময়নাকে মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে আটক করেছে পুলিশ।

উপজেলার নীলাক্ষিয়া বাজারের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে টিনের বেড়া কেটে ২১টি মোবাইল ফোন চুরির মামলায় শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকালে বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে আটক করে।

থানা সূত্র জানায়, গত ২৬ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) রাতে উপজেলার নিলাক্ষিয়া বাজারের ব্যবসায়ী ফজলুল হকের মোবাইল ফোনের দোকানে টিনের বেড়া কেটে ২১টি মোবাইল ফোন চুরি হয়। এ বিষয়ে ব্যবসায়ী ফজলুল হক বাদী হয়ে বকশীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের পর পুলিশ অভিযানে নামে এবং বিভিন্ন সোর্স ও সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে চুরির ঘটনায় জড়িত মনু মিয়া ও রবিন নামে দুইজনকে ২৭ আগস্ট দুর্গম চরাঞ্চল থেকে আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে চুরির ১৯টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

এদিকে আটক মনু মিয়া ও রবিনকে আদালতে সোপর্দ করা হলে ১৬৪ ধারা জবানবন্দিতে তারা চুরির সাথে নীলাক্ষিয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সালেহ আহমেদ ময়নার জড়িত থাকার কথা জানায়।

পরে আদালতের নির্দেশে শুক্রবার সকালে আওয়ামী লীগ নেতা সালেহ আহমেদ ময়নাকে থানা পুলিশ আটক করে।

এ ব্যাপারে বকশীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, চুরির ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আটককৃত আসামি মনু মিয়া ও রবিনের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি মোতাবেক বিজ্ঞ আদালত সালেহ আহমেদ ময়নাকে আটকের নির্দেশ দেন। পরে তাকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এদিকে নীলাক্ষিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম খোকা জানান, মনু ও রবিন পেশাদার চোর। চুরির বিষয়টি জানার পর সালেহ আহমেদ ময়না অভিযুক্ত দুইজনকে চুরিকৃত মালামাল বের করে দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেছিলেন। এ ক্ষোভ থেকেই তারা আদালতে বিভ্রান্তিকর জবানবন্দি দেয়।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //