চাঁদে জমি কিনলেন সাতক্ষীরার দুই ছাত্র

সাতক্ষীরার দুই কলেজছাত্র

সাতক্ষীরার দুই কলেজছাত্র

চাঁদে জমি কেনার দাবি করে তোড়পাড় সৃষ্টি করেছেন সাতক্ষীরার দুই বন্ধু কলেজ ছাত্র এস এম শাহিন আলম ও শেখ শাকিল হোসেন।

সম্প্রতি চাঁদের জমি বিক্রি করা মার্কিন নাগরিক ডেনিস হোপের ‘লুনার অ্যাম্বাসি’ থেকে এক একর জমি কিনেছেন দুই বন্ধু। এই  জমি কেনার জন্য দিতে হয়েছে মাত্র ৫৫ ডলার।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সেই জমির দলিলও পেয়েছেন তারা। চাঁদের ম্যাপেও উল্লেখ রয়েছে কোথায় তাদের জমি। চাঁদে জমি কেনার দাবি করা দুই বন্ধু সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার পাতাখালি গ্রামের এস এম শাহিন আলম ও সাতক্ষীরা সদর উপজেলার জোড়দিয়া গ্রামের শেখ শাকিল হোসেন।

চাঁদে জমি কেনার ব্যাপারে জলবায়ু যোদ্ধা এসএম শাহিন আলম বলেন, মঙ্গলগ্রহ এবং চাঁদে জমি কিনতে পাওয়া যায় বলে বিভিন্ন গণমাধ্যম নিউজ পড়েছি। সম্প্রতি বাংলাদেশের একজন মঙ্গলগ্রহে জমি ক্রয় করেছে বলে জানতে পারি। আমরা দুই বন্ধু মিলে পরিকল্পনা করি চাঁদে জমি কেনার। বিভিন্ন মাধ্যমে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারি আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট থেকে শুরু করে প্রতিবেশী দেশ ভারতের অনেক নামীদামী তারকা চাঁদে জমি কিনেছেন। চাঁদে আমাদের জমি থাকবে, এমন শখ থেকেই সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছি। আজ আমাদের এ বিষয়ে জানিয়েছেন। এর আগে ওই প্রতিষ্ঠান থেকে চাঁদে এর আগে জমি কিনেছেন সাবেক তিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ, জিমি কার্টার ও রোলান্ড রিগ্যান, সেই প্রতিষ্ঠানের মালিক ডেনিস হোপের কাছ থেকেই জমি কিনেছি আমরা। 

জানামতে আমরাই প্রথম বাংলাদেশি যারা চাঁদে জমি কিনেছি। কল্পরাজ্যের চাঁদের দেশে এক টুকরো জমি কিনতে পেরে আমরা দারুণ উচ্ছ্বসিত।

চাঁদের দেশে কবে যাবেন এমন প্রশ্নের জবাবে শাহিন আলম বলেন, শখের বসে কিনেছি। তবে সেখানে বসবাসের উপযোগী কিনা জানিনা। যাওয়া সুযোগ থাকলে চাঁদের দেশে যাবো।

এব্যাপারে শেখ শাকিল হোসেন জানান, চাঁদে র দেশে বিভিন্ন দামে বিভিন্ন পজিশনে জমি কিনতে পাওয়া যায়। আমরা দুই বন্ধু কম দামী জমি কিনেছি। মালয়েশিয়ান প্রবাসী এক বড় ভাইয়ের কার্ডের মাধ্যমে ৫৫ ডলার পরিশোধ করেছি। তবে যাওয়ার সুযোগ থাকলে দুই বন্ধু সেখানে গিয়ে বসবাস করার ইচ্ছা আছে।

তিনি আরো বলেন, চাঁদে জমি কেনার জন্য মার্কিন নাগরিক ডেনিস হোপের ‘লুনার অ্যাম্বাসি’-ই হলো সবচেয়ে জনপ্রিয় কোম্পানি। যার বাংলা অর্থ ‘চন্দ্র দূতাবাস’।


তাদের তথ্যানুযায়ী, চাঁদে জমির দাম একর প্রতি ২৪.৯৯ ডলার থেকে সর্বোচ্চ ৪৯৯ মার্কিন ডলার৷ বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২১২৫ টাকা থেকে ৪২৪৩৭ টাকা।

জানা গেছে, জমি কেনার পর ক্রেতাকে একটি বিক্রয় চুক্তি, কেনা জমির একটি স্যাটালাইট ছবি এবং জমিটির ভৌগলিক অবস্থান ও মৌজা-পর্চার মতো আইনি নথিও পাঠিয়ে থাকে সংস্থাটি৷ এছাড়া, কেউ যদি আরো একটু ব্যয় করতে রাজি থাকে, তাহলে তাদের জন্য চাঁদের সম্পূর্ণ মানচিত্র এবং অন্যান্য তথ্যও সরবরাহ করা হয়।

চাঁদে জমি কেনা এস এম শাহিন আলম একজন জলবায়ু যোদ্ধা ও সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগ ও শেখ শাকিল হোসেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষে অধ্যয়নরত। সম্প্রতি শাহিন আলম সাতক্ষীরা উপকূলে টেকসই বাঁধের দাবিতে কাফনের কাপড় পরে প্রতিবাদ করার স্থানীয় চেয়ারম্যান ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের এক কর্মকর্তার রোষানলের শিকার হন। শেখ শাকিল হোসেন নিজ এলাকাকে দেশের প্রথম করোনা ভ্যাকসিনেড গ্রাম হিসেবে ঘোষণা করে আলোচনায় আসেন।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //