বিনা-১৭ ধান আলো ছড়াচ্ছে সর্বত্র

সাতক্ষীরার ফসলের মাঠে মাঠে সুশোভিত বিনা-১৭ ধান রোপণে সাফল্যর মুখ দেখছেন কৃষক। মাত্র ১১০ দিনের ব্যবধানে বিঘাপ্রতি ২৫ মণ ধান পেয়ে খুশি সাতক্ষীরার চাষিরা। বিনা-১৭ জাতের এই আমন ধান কাটার পর একই জমিতে রবিশস্য এবং আউশও চাষ করতে পেরেছেন তারা।

সময়, পানি এবং সার সাশ্রয়ী বিনা-১৭ জাতের ধান চাষ করে চাষি লাভবান হওয়ায় তাদের দেখাদেখি অনেকেই এগিয়ে আসছেন বলে জানালেন পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের সাতক্ষীরা উপকেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা সেলিম রেজা।

কৃষক ইউসুফ আলী, জাহাঙ্গীর আলম, সমীর সরদার ও নার্গিস বেগম জানান, বিনা-১৭ জাতের ধান চাষে ৪০ শতাংশ পানি কম লাগে। একইভাবে ইউরিয়া সারও লাগে ৩০ শতাংশ কম। উচ্চ ফলনশীল এই জাতের ধান গাছের প্রতিটি ছড়ায় গড়ে ২৫০-২৬০টি ধান থাকে এবং তা ঝরে যায় না। একইসঙ্গে ধানগাছগুলো সবসময় খাড়া থাকে। এর চালও সরু বলে উল্লেখ করেন তারা। 

কৃষকরা আরও বলেন, অন্যান্য জাতের ধান চাষে যে ফলন আমরা পেয়ে থাকি, তার তুলনায় বিনা-১৭ জাতের ধানে অনেক বেশি ফলন হয়। একইসঙ্গে কৃষকরা এক বছরে একই জমিতে ৪টি ফসল তুলতে পারেন। 

সাতক্ষীরার বিনেরপোতা পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. বাবুল আক্তার বলেন, চলতি মৌসুমে সাতক্ষীরা জেলার ১৫০ জন চাষি বিনা ১৭ জাতের ধান চাষ করেছেন দেড় হাজার একর জমিতে। তারা প্রত্যেকেই বিঘাপ্রতি গড়ে ২৫ মন ধান পেয়ে এখন খুশি। এই জাতের ধানের বীজ সরকারিভাবে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। এ ছাড়া অভিজ্ঞ চাষিরাও এই বীজ সংরক্ষণ করে তা অন্যদের মাঝে বিলি-বণ্টন করে আসছেন। বাংলাদেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির নীতিকে এগিয়ে নেওয়ার লক্ষ্যে বিনা-১৭ জাতের ধান একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বিনা ১৭ জাতের ধানের সব থেকে বড় গুণ হলো যে, এই ধান বছরের সব মওসুমে চাষাবাদ করা যায়।

মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিনা-১৭ এর উদ্ভাবক ও বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম। এতে আরও বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পরিচালক জিএমএ গফুর, সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. নূরুল ইসলাম, মো. হাফিজুর রহমান, মো. নজরুল ইসলাম, প্রমুখ।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //