আছানপুরের বাঁধ ভেঙে হালির হাওরে পানি, দিশেহারা কৃষক

আছানপুরের বাঁধ ভেঙে পানি প্রবেশের কারণে সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলায় হালির হাওরের কয়েক হাজার হেক্টর বোরো ফসিল জমি তলিয়ে গেছে। এতে স্থানীয় কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

গতকাল সোমবার (২৫ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে উপজেলার আছানপুরের বাঁধ ভেঙে হালির হাওরে পানি প্রবেশ করতে শুরু করে। এ হাওরে পাঁচ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষ করা হয়েছিল। 

জেলায় একের পর এক বাঁধ ভেঙে হাওরে পানি ঢুকছে। কাবিটা স্কিম বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কমিটির গাফিলতি, পাউবোর দুর্নীতি ও পিআইসির উদাসীনতায় সুনামগঞ্জে একের পর এক বাঁধ ভেঙে হাওরে পানি ঢুকছে বলে অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়রা। 

স্থানীয় কৃষক ইসলাম উদ্দিন জানান, এখনো হাওরের অর্ধেক ধানও কাটা হয়নি। এ মুহূর্তে পানি এসে হাওর তলিয়ে গেল। আমাদের জীবন জীবিকার অবলম্বন শেষ হয়ে গেছে। এখন ছেলেমেয়ে নিয়ে না খেয়ে থাকতে হবে।

এদিকে, কৃষি বিভাগ বলছে, হালির হাওরে পাঁচ হাজার হেক্টর ফসলি জমি রয়েছে। গতকাল সোমবার পর্যন্ত সাড়ে চার হাজার হেক্টর জমির ফসল কাটা হয়েছে।

সময় মতো বাঁধের কাজ শুরু এবং শেষ না হওয়ায় বাঁধ ভেঙে যাওয়ার ঘটনা ঘটছে বলে উল্লেখ করেছেন স্থানীয় কৃষকরা। হাওর ডুবির দায় প্রশাসনকেই নিতে হবে বলে দাবি জানান তারা।

হালির হাওরের কৃষক সমির রায় জানান, তার জমিতে অর্ধেকের বেশি আধপাকা ধান রয়েছে। মোট জমির চার ভাগের একভাগ ধার তিনি ঘরে তুলতে পেরেছেন। নিজের সন্তানের চেয়ে বেশি যত্ন করে জমিতে ফসল আবাদ করেছেন তিনি। সেই ফসল যখন চোখের সামনে তলিয়ে যায় তখন বেঁচে থাকতে ইচ্ছে করে না বলে মন্তব্য করেছেন সমির।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল হক জানান, গতকাল সোমবার রাত ১০টার দিকে আছানপুরের বাঁধ ভেঙে হালির হাওরে পানি প্রবেশ শুরু করে। তবে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা চলছে।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //