পংকজ নাথের এমপি পদ বাতিলের দাবিতে অস্ত্র হাতে বিক্ষোভ

বরিশার-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য পংকজ নাথ ও মেহেন্দিগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামানের কথোপকথনের একটি অডিও কল রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মেহেন্দিগঞ্জের রাজনীতির মাঠ।

পৌর মেয়রকে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে স্থানীয় সংসদ সদস্য পংকজ নাথের সংসদ সদস্যপদ বাতিলের দাবিতে লাঠিসোটা এবং দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রকাশ্যে বিক্ষোভ মিছিল করেছে আওয়ামী লীগের অপর অংশ। মিছিলের সময় সরকার দলীয় সংসদ সদস্য পংকজ নাথের বিভিন্ন ব্যানার, ফেস্টুন ও বিলবোর্ড ভাংচুর করে বিক্ষোভকারীরা।

পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ শনিবার (২৩ জুলাই) দুপুর ১২টায় পৌর শহরের পাতারহাট বন্দরের শহীদ মিনার মাঠে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্রশাসক মো. মইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুনসুর আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাব আহমেদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সৈয়দ মনির প্রমুখ।

এসময় বক্তারা একজন পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগে বরিশাল-৪ আসনের এমপি পংকজ নাথের সংসদ সদস্য পদ বাতিলের জন্য জাতীয় সংসদের স্পীকারের প্রতি আহ্বান জানান। পংকজ নাথ হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জে আওয়ামী লীগ নিধনের মিশন শুরু করেছেন বলে অভিযোগ করেন বক্তারা। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতির হস্তক্ষেপ কামনা করেন বক্তারা।

সমাবেশ শেষে শহীদ মিনার মাঠ থেকে লাঠিসোটা, বাঁশ ও রডসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সহস্রাধিক নেতাকর্মীর অংশগ্রহণে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে তেমাথা নামক স্থানে এসে শেষ হয়। মিছিল থেকে এমপি পংকজের বিপক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দেয় নেতাকর্মীরা।


এদিকে, মিছিলের সামনে-পেছনে পুলিশ থাকলেও বিক্ষোভকারীরা সড়কের পাশে সাঁটানো এমপি পংকজ নাথের বিভিন্ন শুভেচ্ছা বিলবোর্ড, ফ্যাস্টুন ও ব্যানার ভেঙে ফেলে।

অপরদিকে, আওয়ামী লীগের বিক্ষোভের বিষয়ে শনিবার বিকেলে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে মেহেন্দিগঞ্জ থানার পরিদর্শক তৌহিদুজ্জামান ফোন আলাপের সত্যতা স্বীকার করেন। 

তিনি বলেন, ‘এটি অনেক আগের একটি ফোন কল ছিল। কিন্তু এটি কিভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লো তা আমি বলতে পারছি না।

শনিবার আওয়ামী লীগের বিক্ষোভের বিষয়ে তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আওয়ামী লীগের কর্মসূচি ঘিরে পুলিশ সতর্ক অবস্থানে ছিলো।

এর আগে, বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দীগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য পংকজ নাথ ও মেহেন্দিগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামানের মধ্যে কথোপকথনের ১ মিনিট ৯ সেকেন্ডের একটি অডিও কল রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। যদিও এই কলরেকর্ড সাজানো এবং রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেন সংসদ সদস্য পংকজ নাথ।

১ মিনিট ৯ সেকেন্ডের অডিও কলের দুজনের কথোপকথন তুলে ধরা হলো-

মুঠোফোনের কল আসার পর পরিদর্শক তৌহিদুজ্জামানকে বলতে শোনা যায়, ‘স্যার আদাব, স্যার।’

অপর প্রান্ত সংসদ সদস্য বলেন, ‘আদাব, আপনি ভালো আছেন! আপনি কোথায়?’

তৌহিদুজ্জামান, ‘স্যার আমি পৌরসভার সামনে আছি।’

সংসদ সদস্য, ‘ওইখা‌নে মারামা‌রি যা হইছে তো হইছে, ওই শালায় তো খারাপ। ওরা মারামা‌রি করলে আমাদের লোকজন‌কে বলে দিয়েছি রামদা লইয়া ওপেন সুড কর‌তে। অরা ফাইজলা‌মি করলে কিন্তু কামাল খান কোপ খাইবে, কেমন। যারে সামনে পাইবে হ্যারে কোপাইবো। আপনি কইয়া দেন যে সিদ্ধান্ত হ‌ইছে, মেয়র সামনে পড়লে মেয়রকেও কোপাইবো। যে সামনে পড়বে হ্যারেই কোপাইবো, কেমন!’

তৌহিদুজ্জামান, ‘আচ্ছা স্যার দেখছি, আমরা আছিব বাইরে।’

সংসদ সদস্য, ‘ওসি কই, ওসি কই?’

তৌহিদুজ্জামান, ‘ওসি স্যারে ব‌রিশালে আছেন, স্যার।’

সংসদ সদস্য, ‘ঠিক আছে, যে কোপ খাইছে সে তো খারাপ, নেশাখোর, এডিকটেড, তাই না! এনিয়া যেন মাতব‌রি না করে, বাড়াবাড়ি না করে। আমি পোলাপান রে রেডি হইতে কইছি। যে, তোরা রে‌ডি হ, যা থাকে কপালে, যুদ্ধ হইয়া যাক একটা।’

তৌহিদুজ্জামান, ‘আচ্ছা ঠিক আছে স্যার।’

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //