ICT Division

ছাত্রলীগের সাবেক নেতাকে মারধরের ভিডিও ভাইরাল, গ্রেপ্তার ১

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবিরকে (৪৫) রাস্তায় ফেলে প্রকাশ্যে মারধরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

এ ঘটনায় গতকাল সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো পাঁচ থেকে ছয়জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী।

পরে সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে মামলার ৫ নম্বর আসামি মো. ফাহাদকে (৩৪) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সে চৌমুহনী পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের করিমপুর এলাকার মো. খোরশেদ আলমের ছেলে।

 বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। সেই সাথে অপর আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

জানা যায়, ঘটনার দিন চৌমুহনী বাজারের ডিবি রোডে রড কিনতে যান হুমায়ুন কবির।  এ সময় তাকে পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনির মুহুরীর নেতৃত্বে যুবলীগের সদস্য ফাহাদ, শাহাদাত, রায়হান ও সোহানসহ ১০-১২ জন মিলে পিটিয়ে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে।

অভিযোগ রয়েছে, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা হুমায়ুন কবির নিজ বাড়ির নির্মাণ কাজ শুরু করতে গেলে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। কিন্তু ইতিবাচক সাড়া না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে তার উপর হামলা চালালো হয়।

এদিকে ঘটনার পর গুরুতর আহত অবস্থায় হুমায়ুন কবিরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। 

জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ইমন ভট্ট বলেন, হুমায়ুন কবির দলের দুঃসময়ে চৌমুহনী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ছিল। জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিল। বিরোধীদলের আমলে রাজনীতি করেছে। বিএনপির আমলে নির্যাতিত হয়েছে। দল ক্ষমতায় থাকা অবস্থায়ও বারবার সে নির্যাতিত হচ্ছে।

এ বিষয়ে জেলা পর্যায়ের সিনিয়র নেতারাসহ এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও যুবলীগের স্থানীয় নেতারা ব্যবস্থা নেবেন বলেও আশা প্রকাশ করেন ইমন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //