ICT Division

নাটোরে পূজার দায়িত্ব পালনকালে পুরোহিত ও আনসার সদস্যের মৃত্যু

নাটোরের তেবাড়িয়ায় পূজার সময় পুরোহিত এবং নলডাঙ্গায় দায়িত্বরত অবস্থায় এক আনসার সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। তারা অসুস্থ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন বলে জানা গেছে।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন- নাটোর পৌর এলাকার তেবাড়িয়া পালপাড়া মণ্ডপের পুরোহিত বিশ্বনাথ  চক্রবর্তী এবং আচরাখালী আনন্দময়ী কালিমন্দিরে কর্তব্যরত আনসার সদস্য আলাউদ্দিন আলী (৫৯)। 

আজ বুধবার (৫ অক্টোবর) সকাল ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আনসার সদস্য আলাউদ্দিন আলী মারা যান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নলডাঙ্গা ইউএনও রোজিনা আক্তার।

এদিকে, বেলা ১১টার দিকে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে  পুরোহিত বিশ্বনাথ চক্রবর্তীকে নাটোর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আর এম ও ডা. মমিন তাকে মৃত ঘোষণা করেন। 

পুরোহিত বিশ্বনাথ চক্রবর্তী তার ছেলে পুলিশ সদস্য পার্থ চক্রবর্তীর সাথে নাটোর শহরের হরিশপুর এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন।

নলডাঙ্গা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রোজিনা আক্তার  জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে আচরাখালী আনন্দময়ী কালিমন্দিরে কর্তব্যরত আনসার সদস্য আলাউদ্দিন আলী হঠাৎ বুকে ব্যাথা অনুভব করেন। রাতেই তাকে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (৫ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে তিনি মারা যান। 

অন্যদিকে, বুধবার (৫ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে নাটোর পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মহাসড়ক সংলগ্ন তেবাড়িয়া হাটের পাশে পালপাড়া সার্বজনীন দুর্গা মণ্ডপের পুরোহিত বিশ্বনাথ চক্রবর্তী গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে মন্দির কমিটির লোকজন তাকে নাটোর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  

বিষয়টি নিশ্চিত করে পালপাড়া মণ্ডপের সাধারণ সম্পাদক অমল সেন জানান, পূজার কাজ শেষে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি গুছিয়ে রওনা হওয়ার পথে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নাটোর জেলা আনছার অ্যাডজুডেন্ট শফিকুল আলম জানান, আনসার সদস্য আলাউদ্দিন আলীর মরদেহ পরিবারের কাছে  হস্তান্তর করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //