ICT Division

অসামাজিক কাজের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাকে গণধোলাই

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন। রক্তাক্ত অবস্থায় তিনি কুষ্টিয়ার আড়াইশ শয্যার হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। হামলাকারীদের আইনের আওতায় নেয়া না হলে আত্মহত্যার হুমকিও দেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডস্থ একটি তিনতলা বাড়িতে তিনি হামলার শিকার হন। তবে হামলাকারীদের দাবি শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ ওই বাড়িতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত ছিলেন। যদিও শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জের দাবি ঘটনা পরিকল্পিত।

স্থানীয় সূত্র জানায়, দুপুর আড়াইটার দিকে শহরের পিটিআই রোডস্থ একটি তিনতলা বাড়িতে একদল যুবক জোরপূর্বক ঢুকে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জকে মারধর করে। ওই বাড়িতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগ তোলা হয় তার বিরুদ্ধে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান, শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ প্রায়ই ওই বাড়িতে যাতায়াত করতেন। খারাপ প্রকৃতির মানুষ ওই বাড়িতে যাতায়াত করেন বলেও জানান তিনি।

তবে এ বিষয়ে শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে কুষ্টিয়া শহরের বড় বাজার এলাকায় জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতার সাথে দেখা করার উদ্দেশ্যে যান। কিন্তু সেখানে ১০-১২ জন যুবক তার পিছু নেয়। পরে কোনমতে সেখান থেকে কুষ্টিয়া আদালত পাড়ায় আসেন। পিটিআই রোডস্থ তার খালার বাড়িতে দুপুরের খাবার খেতে যান তিনি। এসময় তার পিছু নেয়া যুবকরা তার বাড়িতে অতর্কিতভাবে ঢুকে পড়ে। এসময় তিনি ঘরের মধ্যে থাকা টয়লেটের ছাদের ওপর স্টোর রুমে আত্মগোপন করলে সেখান থেকে টেনে হিঁচড়ে বের করে আনা হয় তাকে। এরপর লাঠিসোটা দিয়ে বেদম পেটানো হয়। এতে রক্তাক্ত হন তিনি। তবে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি। যে বাড়ির ঘটনা সেটি তার খালা শিরিনা বেবিনের বাড়ি।

এদিকে হামলার শিকার জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ বিকেলে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে কয়েকজন নেতাকর্মীকে নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন। এসময় গণমাধ্যম কর্মীদের জানান হামলাকারীদের আইনের আওতায় নেয়া না হলে আত্মহত্যা করবেন।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকুর রহমান অনিকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার রহমান খান জানান, কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডস্থ কুদ্দুস নামে এক ব্যক্তি ওই বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে থাকেন। শুনেছি সেখানে অসামাজিক কাজ হয়ে আসছে। চ্যালেঞ্জের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগে স্থানীয়রা সেখানে হামলা চালায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চ্যালেঞ্জকে উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়ে নেয়।

বেশ কিছুদিন ধরেই ছাত্রলীগের আভ্যন্তরীণ কোন্দলের শিকার হয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়েন শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ ও তার অনুসারীরা। খোদ ছাত্রলীগের নেত্রী তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগ আনেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //