কৃষক অপহরণ, ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের

কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা থেকে আলী হোসেন (৫৫) নামের এক কৃষককে অপহরণের ৩৬ ঘণ্টা পরও তার সন্ধান মিলেনি। গতকাল রবিবার (২১ মে) সকালে লেদার পাহাড়ি এলাকায় গরু চড়াতে গেলে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা কৃষক আলী হোসেনকে অপহরণ করে টেকনাফের গহিন পাহাড়ের দিকে নিয়ে যান।

আলী হোসেনের বাড়ি লেদার মৌলভীপাড়ায়। আলীর পরিবারের সদস্যরা বলেন, রবিবার বিকেলে আলীকে ছেড়ে দেওয়ার বিপরীতে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছিলেন। এরপর থেকে যোগাযোগ বন্ধ আছে। অপহরণের খবর পুলিশকে জানানো হলে তাকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। এ কারণে ঘটনা পুলিশকেও জানাতে পারছেন না।

কৃষক আলী হোসেনকে অপহরণের তথ্য জানান হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নুরুল হুদা।

অপহৃত আলীর ছোট ভাই কামাল হোসেন বলেন, রবিবার সকালে তার বড় ভাই লেদার পুরোনো রোহিঙ্গা আশ্রয়শিবিরের পার্শ্ববর্তী পাহাড়ি এলাকায় গরু চড়াতে যান। সেখানে তার কৃষিজমি রয়েছে। ওই জমিতে চাষাবাদ করার পাশাপাশি কয়েক দিন ধরে গরু চড়াতে যান তিনি। রবিবার সকালে গরু নিয়ে যাওয়ার সময় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে গহিন পাহাড়ের দিকে নিয়ে যান। সোমবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তার খোঁজ নেই। তাতে পরিবারের সদস্যদের মধ্যে দুশ্চিন্তা বাড়ছে।

কামাল হোসেন আরো বলেন, রবিবার বেলা তিনটার দিকে মুঠোফোনে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি মুক্তিপণের ১০ লাখ টাকা জোগাড় করতে বলেন। এরপর অপহৃত আলীর সঙ্গে কথা বলতে দেন। ওই সময় আলী তাকে বলেন, তিনি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের হাতে অপহৃত হয়েছেন। অপহরণের খবর পুলিশ, র‌্যাবসহ কোনো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানো হলে সন্ত্রাসীরা তাকে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিয়েছে। এ কারণে অপহরণের খবর তারা পুলিশকে জানাননি।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুল হালিম বলেন, হ্নীলা থেকে কৃষক অপহরণের ঘটনা তার জানা নেই। এ বিষয়ে কেউ থানায় অভিযোগও করেননি। তারপরও তিনি ঘটনার অনুসন্ধান করছেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //