চুয়াডাঙ্গায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আদেশ বাস্তবায়ন নেই

চুয়াডাঙ্গায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অফিস আদেশের বাস্তবায়ন হতে দেখা যায়নি। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানদের সিদ্ধান্তহীনতার কারণে বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল থেকে কোন কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা ছিল। শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধের আদেশ দেয়া হলেও কোন কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান, বোর্ডে নোটিশ টাঙ্গিয়ে দিয়ে এদিন দুপুরের আগেই প্রতিষ্ঠানের অফিস বন্ধ করে দিয়ে বাড়িতে ফিরে প্রাইভেট শিক্ষা শুরু করেছেন। যদিও সরকারী নির্দেশনা রয়েছে ছুটির দিন ব্যতীত সকাল থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত অফিস খোলা থাকবে।

গত ১৬ জানুয়ারি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক অফিস আদেশে বলা হয়, চলমান শৈত্যপ্রবাহে তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের একাডেমীক কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রাখতে হবে। জনস্বার্থে এ আদেশ ২০২৪ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত বলবত থাকবে। কিন্তু এ আদেশ মানতে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দেয় চুয়াডাঙ্গার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানরা।

চুয়াডাঙ্গা প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জামিনুর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ৬টায় জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯৪ শতাংশ। এদিন ভোর পৌনে ৬টা থেকে বৃষ্টি শুরু হয়ে সকাল ৮টা ১০ মিনিটে শেষ হয়। এসময় পর্যন্ত ১৯ দশমিক ৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এরপর সকাল ৯টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। এসময় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯২ শতাংশ। এদিন বিকাল ৩টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯৫ শতাংশ।


চুয়াডাঙ্গায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়ায় সাধারণ মানুষে জীবন যাপনে বেড়েছে অস্বস্থি। বৃষ্টি আর শীতে নাকাল জনজীবন। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানরা সিদ্ধান্তহীনতায় এ বৈরী আবহাওয়ায় চরম কষ্ট পোহাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। সর্বশেষ মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এবং জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপে কিছু কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান নোটিশ টাঙ্গিয়ে দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম আগামী শনিবার (২০ জানুয়ারি) পর্যন্ত সকল শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে।

এদিন দুপুরে চুয়াডাঙ্গা পুলিশ লাইন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দেখা যায়, সেখানে যথারীতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে। পাঠদান বিরতি শেষে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাঠে হইহুল্লোড় করে বেরিয়ে আসতে দেখা যায়।


চুয়াডাঙ্গা ভিক্টোরিয়া জুবিলি (ভি.জে.) সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি দেওয়ার ব্যাপারে আমাদের কোন একতিয়ার নেই। সে কারণে গত বুধবার (১৭ জানুয়ারি) রাত ৯টা পর্যন্ত আমরা জেলা শিক্ষা অফিসারের নির্দেশনার অপেক্ষায় ছিলাম। সর্বশেষ শিক্ষা অফিসার আমাদের জানান, বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) জেলার সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। ওই নির্দেশনা পেয়ে আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছি। আগামী রবিবার (২১ জানুয়ারি) আবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা শিক্ষা অফিসার মো. আতাউর রহমান বলেন, নির্দেশনা মেনে এবং আবহাওয়া দপ্তরের রেকর্ড অনুযায়ী তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস নিচে থাকায় ও বৃষ্টি হওয়ার কথা ভেবে শুধু আজকে অর্থাৎ বৃহস্পতিবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছি। আগামী রবিবার তাপমাত্রা যদি ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে থাকে তাহলে এ নিয়ম বলবত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্দেশনা মানবে না তাদেরকে আবারো এ আদেশ মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হবে।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //