আনসার সদস্যের মানবিকতা কান্না থামাল হকারের

জামালপুর থেকে হকারি করতে করতে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে আসেন আয়ুব হোসেন নামের এক দরিদ্র হকার। আজ শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে আয়ূব হোসেন বিভিন্ন হাটবাজারে হাকারি করে খুলনা যাওয়ার উদ্দেশে মোবারকগঞ্জ রেলস্টেশনে আসেন।

এসময় অসাবধানতাবশত তার কাছে থাকা ১০ হাজার টাকা মোবারকগঞ্জ রেল স্টেশনের প্লাটফর্মে পড়ে যায়। কষ্টে অর্জিত টাকা হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন হকার আয়ুব হোসেন।

হকার আয়ুব হোসেনের হারিয়ে যাওয়া ১০ হাজার টাকা স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে পান স্টেশনে কর্মরত এক আনসার সদস্য। টাকাগুলো নিয়ে ওই আনসার সদস্য স্টেশন মাস্টার শাহজান শেখের কাছে জমা দেন। এসময় স্টেশন মাস্টার শাজাহান শেখ মাইকে ঘোষণা দেন কিছু টাকা পাওয়া গেছে। উপযুক্ত প্রমাণ দিতে পারলে তাকে টাকাগুলো ফেরত দেওয়া হবে।

মাইকে ঘোষণা শোনার পর আয়ুব হোসেন উপযুক্ত প্রমাণ দিয়ে স্টেশন মাস্টার শাহজানের কাছ থেকে টাকাগুলো ফেরত নেন। হারানো টাকা ফেরত পেয়ে কাঁদতে কাঁদতে মহান আল্লাহ দরবারে শুকরিয়া আদায় করেন।

টাকা ফেরত পেয়ে আয়ুব হোসেন জানান, আমি বিভিন্ন বাজার ও ট্রেনে হকারি করে যা আয়-রোজগার করি তা দিয়ে আমার ও আমার পরিবার চলে। আজ সকালে খুলনা যাওয়ার জন্য মোবারকগঞ্জ রেলস্টেশনে এসেছিলাম। দুপুরে ট্রেন আসার কিছুক্ষণ আগে আমি টের পাই আমার কাছে থাকা টাকা হারিয়ে গেছে। আমি কান্নায় ভেঙে পড়ি। ধরেই নিয়েছিলাম আমার টাকা আর ফেরত পাব না। কিছুক্ষণ পরে স্টেশন মাস্টার ঘোষণা দেন কিছু টাকা পাওয়া গেছে। আমি প্রমাণ উপস্থাপন করার পর আমাকে টাকাটি ফেরত দেন। টাকা পেয়ে স্টেশন মাস্টার শাহজাহান শেখ ও আনসার সদস্য দু’জনই খুব ভালো মানুষ বলে যোগ করেন আয়ুব হোসেন।

মোবারকঞ্জ রেলস্টেশন মাস্টার শাহজাহান শেখ জানান, শুক্রবার সকালে ট্রেনে খুলনায় যাওয়ার উদ্দেশে মোবারকগঞ্জ স্টেশনে আসেন আয়ুব হোসেন। কিছুক্ষণ পর তিনি বুঝতে পারেন তার কাছে থাকা ১০ হাজার টাকা হারিয়ে গেছে। ওই হারানো টাকা আমাদের স্টেশনের এক আনসার সদস্য পেয়ে আমার কাছে জমা দেন। এরপর উপযুক্ত প্রমাণ দেওয়ায় তার হাতে ওই ১০ হাজার টাকা তুলে দেওয়া হয়।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //