মানিকগঞ্জে চেয়ারম্যান-মেম্বারের বিরুদ্ধে বসতবাড়ি ভাঙার অভিযোগ

মানিকগঞ্জে বসতবাড়ি ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে আজ সোমবার (৪ মার্চ) জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী বিধবা নারী ফুলজান বেগম (৬০)। 

গত শুক্রবার (১ মার্চ) সকাল ১১টার দিকে সাটুরিয়া উপজেলার তিল্লি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ফুলজান বেগম ওই এলাকার মৃত মারফত আলীর স্ত্রী।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, আর,এস ১৭ নং খতিয়ানের ৩৮০ দাগে ৩১ শতাংশ জায়গা ক্রয় সূত্রে প্রায় ৫১ বছর ধরে বসবাস করে আসছিলেন ফুলজান বেগমের পরিবার। শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে পূর্বে কোনকিছু না জানিয়ে তিল্লি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম ধলা, ৩নং ওয়ার্ড সদস্য আলমগীর হোসেন, ইমান আলী, জিন্নত আলী, ওহাব আলীসহ পাঁচ-সাতজন ফুলজান বেগমের বাড়ির দক্ষিণ পাশের দোচালা টিনের বসত ঘর ভেঙে ফেলেন। এতে তার প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতি হয়। তারা জোরপূর্বক দখল করে পার্শ্ববর্তী জমির মালিক ওহাব আলীর কাছে দখল বুঝিয়ে দিতে চেষ্টা করেন। 

লিখিত অভিযোগে ফুলজান বেগম নিজেকে অসহায় ও দূর্বল উল্লেখ করে বলেন, আমি বিধবা হওয়ায় আমার লোকজন নেই। বিভিন্ন জনের কাছে ঘুরে কোন সঠিক বিচার না পেয়ে আপনার শরণাপন্ন হয়েছি। চেয়ারম্যান ও মেম্বার এবং তাদের বাহিনী আমাকে এলাকা ছাড়া করবে বলে হুমকি দিচ্ছেন।

৩নং ওয়ার্ড সদস্য আলমগীর হোসেন বলেন, আমরা ঘর ভাঙি নাই, মিস্ত্রিরা ভেঙেছে। চেয়ারম্যান ডেকেছিলেন বলেই ওখানে গিয়েছিলাম।

এ বিষয়ে তিল্লি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম ধলা বলেন, ওই জায়গা নিয়ে দুইপক্ষের ঝামেলা রয়েছে। যেকোনো সময় সংঘাত হতে পারে। ওটা সরকারি জায়গা। এজন্য লোকজন নিয়ে ওই জায়গা দখলমুক্ত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক রেহেনা আকতার জেলা প্রশাসক সম্মেলন ২০২৪ উপলক্ষে ঢাকায় অবস্থান করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //