রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গ্রেনেড ও অস্ত্র উদ্ধার, আটক ৪

কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) চার সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে বেশ কিছু হ্যান্ডগ্রেনেড, ওয়াকিটকি, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

আজ রবিবার (১৯ মে) ভোর রাত ৩টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত উখিয়া উপজেলার ২০ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এস-১/বি-৭ ব্লকের কাঁটাতারের সীমানার বাইরে গঁইয়াম বাগানে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিরাপত্তায় নিয়োজিত ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সহ-অধিনায়ক পুলিশ সুপার মো. আরেফিন জুয়েল।

গ্রেপ্তাররা হলেন- উখিয়া উপজেলার ১৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ-৮১ ব্লকের দ্বীন মোহাম্মদের ছেলে আমির হোসেন (২৯), একই ক্যাম্পের এইচ-১০০ ব্লকের ফজল করিমের ছেলে জিয়াউর রহমান (৩২), উখিয়ার ৪ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-৪ ব্লকের আব্দুস সালামের ছেলে সৈয়দুল আমিন (৩০) এবং ৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এ-১ ব্লকের বাদশা মিয়ার ছেলে মো. হারুন (২২)।

গ্রেপ্তারকৃতরা মিয়ানমারের সশস্ত্র সন্ত্রাসী সংগঠন আরসার সদস্য ও একাধিক মামলার এজাহারভুক্ত আসামি বলে জানান এপিবিএনের সহ-অধিনায়ক আরেফিন জুয়েল।

তিনি বলেন, রবিবার ভোর রাতে উখিয়া উপজেলার ২০ এক্সটেনশন নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কতিপয় অস্ত্রধারী লোকজন অপরাধ সংঘটনের উদ্দেশ্যে জড়ো হয়েছে খবরে এপিবিএন পুলিশের একাধিক দল সাঁড়াশি অভিযান চালায়। এতে ঘটনাস্থলে পৌঁছলে দুষ্কৃতিকারীরা এপিবিএন সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। আত্মরক্ষার্থে এপিবিএন সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। গোলাগুলির এক পর্যায়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় এপিবিএন সদস্যরা ৪ দুর্বৃত্তকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

পরে গ্রেপ্তারকৃতদের দেওয়া তথ্য মতে, আরসা সন্ত্রাসীদের আস্তানায় তল্লাশি চালিয়ে পাওয়া যায় ৪টি হ্যান্ডগ্রেনেড, দেশীয় তৈরি ৭টি বন্দুক, চার্জারসহ ২টি ওয়াকিটকি, ৯টি গুলি, হ্যান্ডগ্রেনেডে ব্যবহৃত ২ প্যাকেট লোহার বল, ২টি কিরিচ দা ও কয়েকটি হেলমেট।

এপিবিএনের সহ-অধিনায়ক জানান, গ্রেপ্তারকৃতরা সকলে মিয়ানমারের সশস্ত্র সন্ত্রাসী সংগঠন আরসার সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে হত্যা, অপহরণ, অস্ত্র ও চাঁদাবাজিসহ নানা অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে।

অভিযানের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য বিকেলে ১৪ এপিবিএন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যমের কাছে অবহিত করা হবে বলে জানান পুলিশ সুপার মো. আরেফিন জুয়েল।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //