বেনাপোলে ভারত-বাংলাদেশ পোর্ট-টু-পোর্ট ওয়ার্কসপ

ভারত-বাংলাদেশ পোর্ট-টু-পোর্ট ওয়ার্কসপ ও উচ্চ পর্যায়ের, বিশ্বব্যাংক, এডিবি বন্দর, কাস্টমস বিজিবি ও পুলিশের সমন্বয়ে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বেনাপোল কাস্টমস হাউসে। 

আজ সোমবার (১০ জুন) সকালে বেনাপোল কাস্টমস হাউস অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কাস্টমস কমিশনার মো. আব্দুল হাকিম। 

বৈঠকে উভয় দেশের বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বানিজ্য সহজিকরণ, বন্দরের সমস্যা, সম্ভাবনা, বন্দর আধুনিকায়ন, দ্রুত পাসপোর্ট যাত্রী যাতাযাত ও সমাধানের বিষয়ে আলোচনা হয়। এডিবি ও বিশ্ব ব্যাংকের সহযোগিতায় বেনাপোল বন্দরকে ডিজিটালাইজেশন করা হচ্ছে। 

বৈঠকে দুই দেশের মোট ৫৭ জন কর্মকর্তা অংশ গ্রহণ করেন। 

এসময় বাংলাদেশের পক্ষে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর দফতরের সিনিয়র অ্যাসিসটেন্ট সেক্রেটারি মি.দিনেশ সরকার, স্থলবন্দরের প্রজেক্ট ডাইরেক্টর মো. সারোয়ার আলম, এডিশনাল ডিআইজি মো. আশিকুল হক ভূঁইয়া, বিজিবির ডাইরেক্টর অপারেশন লে.কর্ণেল আনোয়ারুল আজাহার, ডাইরেক্টর মিনিস্ট্রি অব ফরেন এফেয়ার্স বিদোষ চন্দ্র বর্মন ও বেনাপোল বন্দরের ডাইরেক্টর রেজাউল করিম।

ভারতের পক্ষে বক্তব্য রাখেন- ইন্ডিয়ান ল্যান্ডপোর্ট অথরিটির চেয়ারম্যান শ্রী অদিত্য মিশ্র, ল্যান্ডপোর্ট অথরিটির সচিব শ্রী ভিভেক ভার্মা, কাস্টমস কমিশনার শ্রী ভিমল কুমার, কাস্টমস কমিশনার (প্রিভেনটিভ) শ্রী রঞ্জন খান্না, বিএসএফ’র সাউথ বেংগল আইজি আউস মানি তিউয়ারি, আইজি পুলিশ (ওয়েস্টবেংগল) শ্রী সুকেশ জাইন, ওয়ার্লড ব্যাংকের সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেসালিস্ট ইরিক নোরা ও এডিবির সিনিয়র ট্রান্সপোর্ট স্পেসালিস্ট হুমায়ুন কবীর।

বৈঠকে অচিরেই দুই দেশের বন্দরকে ডিজিটালাইজেশন, আমদানি রপ্তানি বানিজ্যকে আরও গতিশীল, দ্রুত পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াত ব্যবস্থার বিষয় গুলো নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত হয়। তবে অনুষ্ঠানে স্থানীয় কোন সাংবাদিকদের জানানো হয়নি।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //