ননএমপিও শিক্ষকদের বেতন নিয়ে নতুন নির্দেশ

কলেজের স্থায়ী-অস্থায়ী তহবিল থেকে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

কলেজের স্থায়ী-অস্থায়ী তহবিল থেকে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

সরকারিকৃত কলেজের ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা কলেজের স্থায়ী-অস্থায়ী তহবিল থেকে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। 

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে গত ৯ মে ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন দিতে সরকারিকৃত কলেজের এফডিআর নগদায়নের অনুমতি দেয়া হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দেয়া অনুমতি পত্রের নির্দেশনা অনুযায়ী এফডিআর নগদ করে ননএমপিও শিক্ষকদের বেতন দিতে সব সরকারিকৃত কলেজের অধ্যক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর।

গত রবিবার (৬ জুন) মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এ নির্দেশনা সরকারিকৃত কলেজগুলোর অধ্যক্ষকে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার (৮ জুন) আদেশটি প্রকাশ করেছে শিক্ষা অধিদফতর।

করোনা মহামারির পরিস্থিতি অব্যাহত থাকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এ সময় শিক্ষার্থীদের কাছে টিউশন ফি আদায় করা যাচ্ছে না বিধায়, নতুন সরকারি হওয়া কলেজগুলোর নন এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছে না। কিছু প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ পর্যাপ্ত তহবিল না থাকার কারণে এফডিআর নগদয়ান করে ননএমপিও শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন দিতে আবেদন করেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর কলেজের তহবিল থেকে বা জরুরি প্রয়োজনে এফডিআর নগদ করা অনুমতি দিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগকে অনুরোধ করেন। 

সে পরিপ্রেক্ষিতে গত ৯মে নতুন সরকারিকৃত কলেজের ননএমপিও শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন সাধারণ তহবিল থেকে দিতে এবং প্রয়োজনে কলেজের এফডিআর নগদ করার অনুমতি দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তবে, মন্ত্রণালয় থেকে সাধারণ তহবিল ও এফডিআর নগদ করে ননএমপিও শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন দিতে ৪টি শর্ত দেয়া হয়েছিল। মন্ত্রণালয়ের চারটি শর্তের মধ্যে ছিল, সরকারি হওয়া কলেজগুলোর সাধারণ তহবিল থেকে এ বাবদ অর্থ প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যদি সাধারণ তহবিলে অর্থ সংকুলান না হয় তবেই কেবল এফডিআর নগদ করে অর্থ তোলা যাবে।

যেসব ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা বর্তমানে কলেজ থেকে তহবিল স্বল্পতার কারণে বেতন পাচ্ছেন না, তাদেরকে বিগত ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের এপ্রিল ও মে মাসের পরিবর্তে ২০২০ খ্রিষ্টাব্দের জুন থেকে নভেম্বর মোট ছয় মাসের শুধু মূল বেতন দেওয়ার জন্য নগদায়নকৃত অর্থ ব্যবহার করা যাবে।

নিয়োগ নিষেধাজ্ঞা জারির অনতিপূর্বে গৃহীত কলেজ গভর্নিং বডির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিক্ষক-কর্মচারীদের মূল বেতন নির্ধারিত হবে।

প্রাপ্যতার অধিক অর্থ উত্তোলন করা হলে সে ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে শিক্ষক-কর্মচারীদের চূড়ান্ত সরকারিকরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে প্রদত্ত অর্থ সমন্বয় করতে হবে। এ জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষকে একটি লিখিত আন্ডারটেকিং প্রদান করবে।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh