ICT Division

অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের অসাধারণ সাফল্য

আন্তর্জাতিক আর্থ সাইন্স অলিম্পিয়াডের (আইইএসও) এবারের ১৫তম আসরে আটটি পদক জিতেছে বাংলাদেশ।

‘আইইএসও’ হলো মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য পৃথিবী এবং পরিবেশ বিজ্ঞানের একটি বার্ষিক বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা। এই বছর, সারা বাংলাদেশ থেকে ১০০০ জন শিক্ষার্থী বেশ কয়েকটি আঞ্চলিক এবং জাতীয় প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল। তাদরে মধ্য থেকে শীর্ষ আট জন শিক্ষার্থী নিয়ে এবারের আসরে দল পাঠায় বাংলাদেশ।

২০১২ সালে বাংলাদেশের অভিষেকের পর থেকে বাংলাদেশ দল তার সেরা পারফর্মেন্স করে আসছে। প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করেছে ইতালি। এটি গত মাসের ১৫ তারিখ থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়।

এ প্রতিযোগিতার এবারের আসরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইউনুস আহমেদ খান এবং জাতীয় আর্থ অলিম্পিয়াডের প্রাক্তন বিজয়ী আরিয়ান আন্দালিব আজিম বাংলাদেশ দলের মেন্টর এবং উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

জানা গেছে, নটরডেম কলেজ থেকে সৌম্য সাহা, ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ থেকে সাবিত ইবতিসাম আনান, ঢাকা ইম্পেরিয়াল কলেজ থেকে এম.এস. মোত্তাকিন তাশিন এবং ঢাকা কলেজ থেকে সৈয়দ ইফতেখার সালাম দীপ্ত - প্রত্যেকেই প্রতিযোগিতার পৃথক বিভাগে ব্রোঞ্জ পদক অর্জন করেছে । আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজের মুনতাসির রহমান, সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ থেকে ইলহামুল আজম, সৌম্য সাহা, এবং এস.এম. মোত্তাকিন তাশিন সমন্বয়ে গঠিত বাংলাদেশ দল দুইটি ন্যাশনাল টিম ফিল্ড ইনভেস্টিগেশন (এনএফটিআই) রাউন্ডে বাংলাদেশের রাঙ্গামাটিতে সাম্প্রতিক ভূমিধ্বসের কারণ সম্পর্কে উপস্থাপনার জন্য রৌপ্য পদক লাভ করে। ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের আবরার আজিম হৃতেক, রাজশাহী কলেজের ফাইজা ইসলাম এবং সৈয়দ ইফতেখার সালাম দীপ্তির সমন্বয়ে গঠিত অন্য বাংলাদেশ দল বাংলাদেশের বিভিন্ন নদী তীরবর্তী শহরে ভূগর্ভস্থ পানি দূষণ এবং মাটির ক্ষয়ের উপর উপস্থাপনার জন্য একই রাউন্ডে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন ব্রিটিশ হাই কমিশনে সমস্ত বিজয়ী ও পদকপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন একটি ক্রমবর্ধমান সংকট এবং বাংলাদেশ এর দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে, বাংলাদেশের তরুণ ছাত্র-ছাত্রীরা এই সংকট মোকাবিলায় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছে এবং সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করছে। এই বছর আন্তর্জাতিক আর্থ সাইন্স অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণকারী এবং আটটি পদকজয়ী বাংলাদেশ দলকে আমি আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। ব্রিটিশ হাই কমিশন বিওয়াইইআইয়ের সাথে মিলে এই দলকে সহযোগিতা করতে পেরে আমি গর্বিত।’

বিওয়াইইআইয়ের প্রতিষ্ঠাতা শামীর শিহাব বলেন, ‘বাংলাদেশকে একটি জলবায়ু সহনশীল দেশ হতে হলে, আমাদের একটি নতুন তরুণ প্রজন্ম তৈরি করতে হবে। যারা পরিবেশ রক্ষায় অগ্রগ্রণী ভূমিকা পালন করবে। তারা নতুন জ্ঞান উৎপাদন, চর্চা এবং তার আলোকে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে নেতৃত্ব দিবে। এনইও, বিওয়াইইআইয়ের মূল প্রোগ্রামগুলির মধ্যে একটি যার মাধ্যমে বিওয়াইইআই ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে তরুণ পরিবেশ নেতৃত্ব সৃষ্টির জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে৷’

জাতীয় আর্থ অলিম্পিয়াড ২০২২ -এর সহ-আহ্বায়ক ও উপদেষ্টা অধ্যাপক কাজী মতিন আহমেদ ও ইউনুস আহমেদ খান বলেছেন, আমরা এ বছর বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে খুবই সন্তুষ্ট এবং আগামী বছরগুলোতে আরো ভালো করার আশা করছি। আমাদের লক্ষ্য এনইওয়ের মাধ্যমে সমগ্র বাংলাদেশের তরুণদের মধ্যে পৃথিবী ও পরিবেশ বিজ্ঞান শিক্ষা ও সচেতনতা ছড়িয়ে দেওয়া।’

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //