শীতে ফিট ব্লেজারে

যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে অফিসিয়াল পোশাকের গণ্ডি পেরিয়ে হালের ফ্যাশনে জায়গা করে নিয়েছে ব্লেজার। শীতের ফ্যাশন হিসেবে কোট বা ব্লেজার বা স্যুট-টাই অনেকের পছন্দের। বিশেষ করে যারা করপোরেট চাকরি করেন তারা অফিস যেতে ফরমাল শার্টের ওপর ব্লেজার চাপান অনেকটা নিয়ম করে। অনেকে টাইও পরেন।

অন্যদিকে করপোরেট অফিসের চাকরিজীবী ছাড়াও হালের ফ্যাশন হিসেবে অনেক তরুণ তরুণী শীতের সময় নানা রঙের ব্লেজার পরেন। অনেকে জিন্স, ডেনিম, গ্যাবার্ডিন বা অন্য কাপড়ের প্যান্টের সঙ্গে মানানসই ব্লেজার পরেন। এসবও শীতের ফ্যাশন হিসেবে বেশ চলছে। এটি পার্টিপোশাক হিসেবে দারুণ।

ফ্যাশন ডিজাইনাররা বলেন, টাই ছাড়াও ব্লেজারের ওপর উলেন স্কার্ফ বা সিল্কের স্কার্ফ জড়িয়ে নিলে ভালো ফ্যাশন হতে পারে। এ ছাড়া একটু ক্যাজুয়াল থাকতে চাইলে ডেনিমের প্যান্ট বা অন্য প্যান্টের সঙ্গে ব্লেজার চাপাতে পারেন, এতে ভিন্ন লুক আনা যেতে পারে। এ ছাড়া ব্লেজারের সঙ্গে প্যান্ট বিপরীত রঙ বা কন্ট্রাস পরলেও ভালো দেখায়। আবার দুটির সঙ্গে ম্যাচিং রঙও মানায়। একই ব্যাকরণ মানা যেতে পারে শার্ট বা অন্য পোশাকের সঙ্গে ব্লেজার পরলেও। মূলত যে কোনো পোশাক পরার ক্ষেত্রে বয়স, সময় আর উপলক্ষটা মাথায় রেখে পরলে সেটি হবে আদর্শ ফ্যাশন।

তরুণের চাহিদার কথা ভেবে এখন ব্লেজারের ডিজাইনেও ভিন্নতা এসেছে। এ ছাড়া শীতকে সামনে রেখে এরই মধ্যে দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলোতে উঠেছে নানা রঙের ও নানা ধরনের কাপড়ের তৈরি ফরমাল ও ক্যাজুয়াল ব্লেজার। এসব ব্লেজার কোনোটা এক রঙের, আবার কোনোটা চেক বা প্রিন্টের। কোনো কোনো ব্লেজার অতি গর্জিয়াস। এখন অবশ্য ফরমাল বা ক্যাজুয়াল সব ধরনের পোশাকের সঙ্গে ব্লেজার পরা যায় বা পরছেন।

তৈরি ব্লেজার পছন্দ না হলে কাপড় কিনে বানিয়ে নিতে পারেন। যে কোনো টেইলার্সে ব্লেজার বানানো যাবে। বানাতে খরচ একটু বেশি হলেও অনেকেই তা করছেন। কারণ, এতে ফিটিংস ভালো হয়। আর দেখতেও ভালো লাগে। বানাতে গেলে টেইলার্সের নিজস্ব ক্যাটালগ দেখে বানাতে পারেন। আবার চাইলে নিজের পছন্দের ডিজাইনেও বানাতে পারেন। এ ছাড়া সাধারণত অনেকেই একই কাপড়ের ব্লেজার ও প্যান্ট বা কমপ্লিট স্যুট বানান। আবার কেউ সিঙ্গেল ব্লেজার, কেউ টু পিস (ব্লেজার-প্যান্ট) বা থ্রি পিসও (ব্লেজার-প্যান্ট-কটি) বানান।

স্বাভাবিক গড়নের একটি ব্লেজার বানাতে সাধারণত দুই গজ কাপড় লাগে। প্যান্টসহ বানালে সোয়া তিন গজ আর প্যান্ট ও কটিসহ বানাতে লাগবে চার গজ। ওভারকোট ও লং কোটে কাপড় লাগবে তিন গজ।

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //