‘গুমের তালিকা জাতিসংঘের গ্রহণযোগ্যতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে’

বাংলাদেশে ৭৬ জন গুমের যে তালিকা দিয়েছে জাতিসংঘ, তাতে সংস্থাটির গ্রহণযোগ্যতা প্রশ্নবিদ্ধ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) রাত ১০টা ৩৩ মিনিটে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে দেওয়া এক পোস্টে তিনি এ কথা বলেন।

পোস্টে সজীব ওয়াজেদ জয় লিখেছেন, বাংলাদেশে ‘জোর করে গুমের’ শিকার ৭৬ ব্যক্তির তালিকা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। কিন্তু এই তালিকা প্রশ্নবিদ্ধ করছে আন্তর্জাতিক সংস্থাটির গ্রহণযোগ্যতাকে। যেই এনজিও গুলোর ওপর নির্ভর করে জাতিসংঘের প্রতিবেদন তৈরি হয়েছে, সেই এনজিওসহ প্রশ্ন উঠছে খোদ জাতিসংঘের তথ্য সংগ্রহের পদ্ধতি নিয়ে।’

তালিকায় থাকা দুজন ভারতীয় নাগরিক বলে পোস্টে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ-প্রযুক্তি উপদেষ্টা। তিনি বলেন, ‘২ জন ভারতের মনিপুর রাজ্যের বিচ্ছিন্নতাবাদী নিষিদ্ধ সংগঠন ইউনাইটেড ন্যাশনাল লিবারেশন ফ্রন্ট-ইউএনএলএফ এর শীর্ষ নেতা। একজন সংগঠনটির চেয়ারম্যান, অপরজন মেজর পদমর্যাদার। তারা হলেন-সানায়াইমা রাজকুমার ওরফে মেঘান ও কেইথেল্লাকপাম নবচন্দ্র ওরফে শিলহেইবা।’

তথ্যপ্রযুক্তি বিষেশজ্ঞ সজীব ওয়াজেদ জয় প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘জাতিসংঘের একটি গ্রুপ কীভাবে এত বড় ভুল করতে পারে? উত্তরটি সহজ, তারা শুধুমাত্র স্থানীয় বাংলাদেশ-ভিত্তিক এনজিওর দ্বারা সরবরাহকৃত গুমের ঘটনাবলিকে তথ্য যাচাই না করেই প্রকাশ করেছে।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের জাতীয় মানবাধিকার কমিশনে ২০১২ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১১৯টি গুমের অভিযোগ জমা পড়েছে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম। তিনি জানান, এর মধ্যে ৬১টি অভিযোগের নিষ্পত্তি হয়েছে। পঞ্চম মানবাধিকার কমিশনের মেয়াদ পূর্তি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার এক মতবিনিময় তিনি এ তথ্য জানান।

কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, ‘ফিরে আসা ব্যক্তিরা কোথায় ছিলেন বা না-ফেরা ব্যক্তিরা কোথায় আছেন, সে বিষয়ে জানতে অনুসন্ধান করছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।’

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //