মামলায় জয়ী ব্র্যাড, নাখোশ জোলি

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

হলিউডের একসময়কার জনপ্রিয় আলোচিত জুটি ব্র্যাড পিট ও অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। ভালোবেসে বিয়েও করেছিলেন তারা। তবে তাদের সেই সংসার বেশিদিন টেকেনি। ২০১৬ সালে বিচ্ছেদের আবেদন করেছিলেন জোলি। ২০১৯ সালে তা চূড়ান্ত হয়। 

বিচ্ছেদের শুরু থেকেই ৬ সন্তানের অভিভাবকত্ব নিয়ে লড়ছেন ‘ব্র্যাঞ্জেলিনা’। এই দম্পতির ছয় সন্তান- ম্যাডক্স, প্যাক্স, জাহারা, শিলোহ, নক্স, ভিভিয়েন। এদের মধ্যে প্রথম তিন সন্তানকে দত্তক নিয়েছেন ব্র্যাড-জোলি। ব্র্যাড পিটের সঙ্গে সম্পর্ক শুরুর আগেই ম্যাডক্স ও জাহারাকে দত্তক নিয়েছিলেন জোলি। এরপর ব্র্যাড পিটও সন্তান দত্তক নেন।

বিচ্ছেদের পর যৌথভাবে সন্তানদের দেখাশোনার দায়িত্ব নিতে চেয়েছিলেন ব্র্যাড। অন্যদিকে, জোলি চাচ্ছিলেন সন্তানরা তার কাছেই থাকুক। এ নিয়ে তৈরি হয় জটিলতা। আদালতের দ্বারস্থ হন ‘ব্র্যাঞ্জেলিনা’ দম্পতি।

অবশেষে অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সঙ্গে বিচ্ছেদের পর সন্তানদের হেফাজতের বিষয়ে আইনি লড়াইয়ে জয় পেয়েছেন ব্রাড পিট। তবে বিষয়টি ভালোভাবে নেননি জোলি। তিনি বিচারকের কঠোর সমালোচনা করেছেন। 

ব্রাড পিট ও জোলির সংসারে ছয় সন্তান। পিট চাইছিলেন সন্তানদের সঙ্গে আরও বেশি করে সময় কাটাতে। কিন্তু তাতে রাজি হচ্ছিলেন না জোলি। অবশেষে বিচারক রায় দিয়েছেন ৫৭ বছর বয়সী অস্কার জয়ী অভিনেতা পিটের পক্ষেই।

জোলি-পিটের সন্তান ও তাদের পরিবারের ঘনিষ্ঠদের সঙ্গে কথা বলে বিচারক আউডারকির্ক রায় দেন। তবে জোলি অভিযোগ করেছেন, রায় দেওয়ার আগে তার সন্তানদের নিরাপত্তা ও ভালো থাকার জন্য প্রয়োজনীয় প্রমাণ-সাক্ষ্য শুনতে অস্বীকার করেছেন ওই বিচারক।

‌১২ বছর সংসার করেছেন পিট ও জোলি। তবে বিয়ের ২ বছরের মাথায় তারা বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন। সন্তানদের হেফাজতের বিষয় সম্পর্কিত রায় পিটের পক্ষে এলেও আইনি লড়াই চালিয়ে যাবেন জোলি।

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh