চলে গেলেন ‘দ্য গডফাদার’ খ্যাত অভিনেতা জেমস কান

‘দ্য গডফাদার’ খ্যাত হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ও পরিচালক জেমস কান মারা গেছেন। ৬ জুলাই ৮২ বছর বয়সে তিনি চলে গেলেন।

জেমস কানের পরিবার এক টুইট বার্তায় জানায়, আপনাদের অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জিমির চলে যাওয়ার খবর জানাচ্ছি। ৬ জুলাই সন্ধ্যায় আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন তিনি। তার প্রতি ভালোবাসা ও সহমর্মিতার বহিঃপ্রকাশ দেখানোর জন্য পরিবারের পক্ষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। একই সঙ্গে এই কঠিন সময়ে ব্যক্তিগত গোপনীয়তা রক্ষার আহ্বান জানাচ্ছি।

 তার মৃত্যু সংবাদে শোক ও গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন বিভিন্ন ব্যক্তিরা। ‘দ্য গডফাদার’ সিনেমায় কানের সহ অভিনেতা আল পাচিনো বলেন, জিমি আমার পর্দার ভাই আর সারা জীবনের বন্ধু। সে একজন দুর্দান্ত অভিনেতা, দারুণ পরিচালক, কাছের বন্ধু। তাকে মিস করব।

অন্যদিকে রবার্ট ডি নিরো বলেন, ‘জিমির চলে যাওয়ার খবর শুনে খুব খুব দুঃখ পেলাম।’

ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা পরিচালিত ১৯৭২ সালে ‘দ্য গডফাদার’ সিরিজে সনি কোরলিওন চরিত্রটি তার সবচেয়ে আইকনিক একটি কাজ। ৯২টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন কান। টেলিভিশনেও অনেক কাজ রয়েছে তার। 

সত্তর দশকে ‘দ্য গডফাদার’ ও ‘ব্রেইনস সং’ মুক্তির পর হলিউডের অন্যতম ব্যস্ত অভিনেতা ছিলেন তিনি। অভিনয়ের পাশাপাশি শুরু করেন পরিচালনাও। ‘হাইড ইন প্লেইন সাইট’ ছবিতে অভিনয় ও পরিচালনা দুই-ই করেন। এ ছাড়া ‘ফানি লেডি’, ‘দ্য কিলার এলিট’, ‘চ্যাপ্টার টু’র মতো সিনেমা নির্মাণ করেছেন এ অভিনেতা।

আশির দশকে মাদকাসক্তি ও বোনের মৃত্যুতে নেতিবাচক প্রভাব পড়ে তার ক্যারিয়ারে। এরপর কিংবদন্তি প্রযোজক রব রেইনারই তাকে বাঁচিয়েছিলেন। তখন তিনি ‘মিজরি’ সিনেমায় পল শেলডনের ভূমিকায় অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন তাকে। এটি ছিল তার আনুষ্ঠানিকভাবে সিনেমায় প্রত্যাবর্তন।

১৯৩৯ সালের ২৬ মার্চ নিউইয়র্কে জন্ম জেমস কানের। তার চারবার বিয়ে ও বিচ্ছেদ হয়। এক মেয়ে ও চার ছেলে রয়েছে তার।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //