ভারতের ভাষা হোক একটাই, তা হিন্দি: অমিত শাহ

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ফাইল ছবি

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ফাইল ছবি

এক রাষ্ট্র, এক ভাষা। আর সেই ভাষা হোক হিন্দি। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এমন কথাই বলেছেন। তিনি বলেন, ‘ভারতে বহু ভাষা রয়েছে। প্রত্যেকটির গুরুত্ব রয়েছে। কিন্তু দেশের একটি ভাষা থাকা প্রয়োজন, যাকে বিশ্ব স্বীকৃতি দেবে ভারতীয় ভাষা হিসেবে। যদি কোনো ভাষা দেশকে বাঁধতে পারে, তা হিন্দি।’  

শনিবার ভারতের হিন্দি দিবস উপলক্ষে হিন্দি ভাষার ক্ষমতা সম্পর্কে বলতে গিয়ে এমনই মন্তব্য করেন তিনি।

টুইটে অমিত লিখেন, ‘হিন্দি ভাষাই একমাত্র ভারতের ঐক্যকে ধরে রাখতে পারে। কারণ, বহুভাষী এই দেশে, সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ এই ভাষাতেই কথা বলেন। দেশের সব ভাষারই বিশেষ কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তবে এই আন্তর্জাতিক স্তরে ভারতের পরিচিতির জন্য একটা নির্দিষ্ট ভাষা খুবই প্রয়োজন। এই দেশের কোরো একটি ভাষা যদি ঐক্য ও উন্নতির ধারাকে অটুট রাখতে পারে, তবে তা বহুল প্রচলিত হিন্দি ভাষাই।’ পাশাপাশি, হিন্দির সঙ্গে মাতৃভাষাকেও গুরুত্ব দেওয়ার আরজি জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অমিতের মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। জুন মাসে জাতীয় শিক্ষা নীতির খসড়ায় হিন্দিকে বাধ্যতামূলক করার সুপারিশ নিয়ে বিক্ষোভ দেখা গিয়েছিল, এ দিনও সেই ছবি দেখা গেছে।

তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ডিএমকে সভাপতি এম কে স্ট্যালিন, পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী, কর্নাটকের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামী থেকে শুরু করে বাম নেতারা- এক সুরে অমিতের বক্তব্যের বিরোধিতা করেছেন। 

স্ট্যালিন বলেছেন, ‘ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উচিত অমিত শাহের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দেওয়া। না হলে ডিএমকে আর একটি ভাষা আন্দোলনের প্রস্তুতি নেবে। এটা ইন্ডিয়া না কি হিন্দিয়া? তামিলনাড়ুর মানুষের রক্তে হিন্দি নেই। রেল, পোস্ট অফিসে নিয়োগ পরীক্ষায় হিন্দি বাধ্যতামূলক করার প্রশ্নেও আমরা সরব হয়েছিলাম।’

 টুইটারে মমতা লিখেছেন, ‘আমাদের উচিত সব ভাষা, সংস্কৃতিকে সমান ভাবে সম্মান জানানো। আমরা অনেক ভাষাই শিখতে পারি, কিন্তু মাতৃভাষাকে ভোলা উচিত নয়।’ 

সবচেয়ে বেশি বিক্ষোভ দক্ষিণ ভারতে। রাস্তায় নেমেছে কর্নাটকের একাধিক সংগঠন। কুমারস্বামী টুইট করে বলেছেন, ‘আজ দেশ জুড়ে হিন্দি দিবস পালন করছে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারি ভাষা হিসেবে কবে হিন্দির সঙ্গে কন্নড় ভাষা দিবসও পালিত হবে?’ 

সিপিএম নেতা মোহাম্মদ সেলিমের প্রশ্ন, ‘গুজরাট হাইকোর্ট যখন বলেছিল, গুজরাটিদের জন্য হিন্দি বিদেশি ভাষা, তখন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ কেন প্রতিবাদ করেননি? তাঁরা এখন হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছেন।’

বিশেষজ্ঞদের মতে, এ সব আরএসএসের ‘হিন্দু-হিন্দি-হিন্দুস্তান’ নীতিরই অংশ। ২০১১ সালের আদম  ‍শুমারির র তথ্য বলছে, ভারতে ১০ জনের মধ্যে ছয়জনেরই মাতৃভাষা হিন্দি নয়। -আনন্দবাজার পত্রিকা 


মন্তব্য করুন

সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার

© 2019 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh