বিচারপতির গাড়িতে হামলা: বিএনপির ১১ নেতাকর্মী রিমান্ডে

সাবেক বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিকের গাড়িতে হামলার অভিযোগে গ্রেপ্তার বিএনপির ১১ নেতাকর্মীর দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারীর আদালত এ আদেশ দেন।

এর আগে, আসামিদের আদালতে হাজির করে পাঁচ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্টন মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মো. মনজুরুল হাসান খান।

রিমান্ডে নেওয়া আসামিরা হলেন- ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুর রহমান সুমিত, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. সাখাওয়াত হোসেন খান, কলাবাগান শাখা ছাত্রদলের সদস্য মো. রবিন খান, বিএনপি নেতা মো. সাগর, মো. জসীম উদ্দীন ভূইয়া, মো. হারুন অর রশিদ, মতিউর রহমান, শামীম রহমান, জামাল হোসেন, আরিফুল ইসলাম ও আবু তাহের।

জানা যায়, গতকাল বুধবার (২ নভেম্বর) বিকেলে নয়া পল্টন সংলগ্ন ফকিরাপুল বাজার মোড়ে বিএনপির একটি মিছিল থেকে সাবেক বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিকের গাড়িতে হামলার অভিযোগ উঠে।

এসময় শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক গণমাধ্যমকে বলেন, আমার ওপর হামলা করা হয় বিএনপির মিছিল থেকে। এসময় আমার গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। এ ছাড়া আমাকে, গাড়ির ড্রাইভার ও গানম্যানকে কিল-ঘুষিসহ মারধরও করেছে। এ সময় বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক এই হামলার জন্য বিএনপিকে দায়ী করেন।

জানা যায়, এদিন বিকেলে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে যুবদলের এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে মিছিল নিয়ে নেতাকর্মীদের যোগ দিতে দেখা যায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সেখান থেকেই সাবেক বিচারপতির গাড়িতে হামলা হয়েছে।

পরে রাতেই বিচারপতি মানিকের গাড়িতে হামলার ঘটনায় তার দেহরক্ষী মো. রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে পল্টন মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় বিএনপির ৪০/৫০ জন অজ্ঞাত নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। পরে পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বিএনপির ১১ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে।   

এদিকে হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে রাতেই একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি একটি বিবৃতি দেয়। এতে বলা হয়, ‘তিনি (বিচারপতি মানিক) যখন গাড়িতে নয়া পল্টনের রাস্তা ধরে যাচ্ছিলেন, তখন বিএনপির সমাবেশ থেকে তার নাম ধরে আপত্তিকর স্লোগান দেওয়া হয় এবং তার ওপর শারীরিকভাবে হামলা করা হয়। একই সঙ্গে বিএনপির সন্ত্রাসীরা তার গাড়ি ভাঙচুর করে এবং গাড়ির ড্রাইভারকেও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।’

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2023 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //