যৌন হয়রানি বন্ধে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই

রাজধানীর গণপরিবহনে যৌন হয়রানি বর্তমানে অন্যতম সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। প্রতিনিয়ত গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ-সংক্রান্ত খবর চোখে পড়ে। অথচ বাংলাদেশের সংবিধানে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০-এ কোনো নারীকে যৌন হয়রানি করলে সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ডের শাস্তি নিশ্চিত করা হয়েছে। অথচ এই সাজায় আজ পর্যন্ত কোনো অভিযুক্ত দণ্ডিত হননি। তবে কি নারীরা যৌন হয়রানির শিকার হতেই থাকবেন? এই ব্যাধি কি নির্মূল করা যাবে না?

সম্প্রতি ‘আঁচল ফাউন্ডেশন’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান তাদের এক গবেষণায় রাজধানীর গণপরিবহনে নারীদের যৌন হয়রানি নিয়ে একটি চিত্র তুলে ধরেছে। সেই গবেষণার তথ্য খুব ভয়াবহ একটি বিষয় সামনে নিয়ে এসেছে। বলা হয়েছে, রাজধানীর গণপরিবহনে ৬৭ শতাংশ নারী যাত্রী পুরুষযাত্রী এবং সংশ্লিষ্ট পরিবহনের কর্মচারীর মাধ্যমে হয়রানির শিকার হন আর ৪৭ শতাংশ নারীযাত্রী যৌন হয়রানির শিকার হন। 

নারীদের যৌন হয়রানি করার ক্ষেত্রে এগিয়ে মধ্য বয়সীরা। গণপরিবহনে ৬২ শতাংশ ৪০ থেকে ৫৯ বছর বয়সী পুরুষ যাত্রী নারীদের হয়রানি করেন। আর ৩৬ শতাংশ তরুণ-কিশোর যাত্রী যৌন হয়রানির সঙ্গে সংযুক্ত হন। 

এটা এখন সামাজিক হুমকিস্বরূপ। গণপরিবহনে নারীদের যৌন হয়রানি বন্ধ করতে অবিলম্বে অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করার চল শুরু হোক। তাহলে এই কুরুচিপূর্ণ মানুষগুলো আর কোনো বোনকে যৌন হয়রানি করার সাহস পাবে না।


জাফরুল ইসলাম
শিক্ষার্থী, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে

Ad

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2022 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //