বাসায় থেকে অফিসের কাজে করণীয়

বাসায় থেকে অফিসের কাজে করণীয়। ফাইল ছবি

বাসায় থেকে অফিসের কাজে করণীয়। ফাইল ছবি

করোনা সংক্রমণের এই বিপর্যয়ে বেশিরভাগ অফিসের কাজই চলছে বাসা থেকে। অনভ্যস্ত এই কাজের ধারার সঙ্গে নিজেকে খাপ খাওয়াতে বেশকিছু প্রতিবন্ধকতাও আসছে। বাড়ির কাজ, শিশু সামলে অফিসের কাজ করা বেশ কঠিনই। 

তবে এ এক্ষেত্রে আমরা যা করতে পারি।

রুটিন করে নেয়া  

প্রথমেই একটি রুটিন তৈরি করে নেয়া যেতে পারে। সম্ভব হলে একটু সকালে উঠেই ঘরের কিছু কাজ করে ফেলতে পারেন। প্রতিদিন অফিসে গিয়ে কাজ করার ক্ষেত্রে সকালে তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে অফিসে ছুটে যাওয়ার তাগিদ অনুভব করা হয়; কিন্তু বাসায় থেকে কাজ করার ক্ষেত্রে তেমনটি হয় না। অফিসে গিয়ে যেভাবে কাজ করতেন, ঠিক তেমনটিই করার চেষ্টা করুন। কত ঘণ্টায় হাতের কাজ শেষ করবেন, তা নির্ধারণ করুন। 

লক্ষ্য নির্ধারণ করুন 

একটা তালিকা করুন, যাতে লেখা থাকবে প্রতিদিন ও সপ্তাহে কোন কোন কাজ করা হবে। এতে করে কোন কাজ শেষ করেছেন এবং কোনগুলো বাকি আছে, তা জানা যাবে।

কাজের পরিবেশ তৈরি করুন  

যেহেতু বাসায় আছেন, তাই সব সময় বিছানায় বসেই আপনি অফিসের কাজ সারবেন, সেটা খুব একটা ভালো আইডিয়া হবে না। কারণ এতে আপনার আলস্য পেয়ে বসতে পারে, কাজের গতি ধীর হয়ে যেতে পারে। তাই গোছানো একটা কাজের পরিবেশ তৈরি করুন, যাতে নিজের মনোযোগ, কাজের স্পৃহা ও আত্মবিশ্বাস বহাল থাকে। কাজের জন্য এমন একটি চেয়ার বেছে নেয়া যেতে পারেন, যেটিতে ভালোভাবে হেলান দিয়ে বসে কাজ করা যায়। দীর্ঘক্ষণ বসার কারণে ব্যাক পেইন ঠেকাতে চেয়ারে কুশন বা ছোট বালিশ পেছনে রেখে বসবেন।

নিয়মিত ব্রেক নিন 

বাসায় থাকলেও অফিসের কাজ যেহেতু করতে হবে, তাই সেই চাপ দূর করতে নির্দিষ্ট সময়ে কয়েকবার বিরতি নেয়া জরুরি। দুই-তিন ঘন্টা কাজ করার পর ১৫ মিনিটের জন্য বিরতি নিন। এ সময় ঘরের ভেতর হাঁটুন, শিশু থাকলে তাকে সময় দিন।

হালকা ব্যায়াম করা যেতে পারে  

যেহেতু বাসায় কাজ করছেন, তাই শরীরটা ফিট রাখতে হালকা কিছু ব্যায়ামও সেরে নেয়া যেতে পারে। সুবিধা মতো সময় বের করে ব্যায়াম করুন। দাঁড়িয়ে হাত ও আঙুলের ব্যায়াম করতে পারেন। কয়েক মিনিট দাঁড়িয়ে হাত ও আঙুল রিলাক্স করার মতো ব্যায়াম করলে শরীরের মাংসপেশিগুলো শিথিল হবে, বাড়তি ক্যালোরিও পুড়বে। ফোনে কথা বলার সময় হাঁটুন।

কাজ ও ব্যক্তিগত জীবনের ভারসাম্য রক্ষা করতে হবে  

বাসায় থেকে অফিসে কাজ করা আসলে খুব একটা সহজ না। কারণ পরিবারের মাঝে থেকে কাজে মনোযোগ দেয়া বেশ কঠিন। তাই পেশাগত জীবন ও ব্যক্তিগত জীবন আলাদা রাখার চেষ্টা করা জরুরি। নির্দিষ্ট সময়ে অফিসের কাজ শেষ করুন। এর বেশি চাপ নেয়া ঠিক না। 

মূল কথা, পরিবারকে পর্যাপ্ত সময় দেয়া ও অফিসের কাজ শেষ করার মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে হবে। কাজের ফাঁকে জানালা দিয়ে বাইরের পরিবেশ দেখার চেষ্টা করুন, উদ্বেগ বা করোনা ভীতি যেন আপনাকে পেয়ে না বসে, সেদিকে খেয়াল রাখুন। বাসায় থাকুন, নিরাপদে থাকুন।


মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh