সাংবাদিক তালাত মাহমুদ আর নেই

শেরপুর জেলার নকলা প্রেসক্লাবের সদস্য, শেরপুর প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্য সাংবাদিক, বিশিষ্ট কবি ও কলামিস্ট তালাত মাহমুদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

রবিবার (৩ মার্চ) সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় শেরপুর সদর হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মরহুমের প্রথম জানাযা নামাজ  সোমবার (৪ মার্চ) সকাল ১১টায় শেরপুর শহরের তেরাবাজার জামিয়া সিদ্দিকিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এবং দুপুর আড়াইটায় জেলার নকলা উপজেলাধীন ৯নং চন্দ্রকোনা ইউনিয়নের বাছুরআলগা গ্রামের নিজ বাড়ির আঙ্গিনায় দ্বিতীয় জানাযা নামাজ শেষে তার পরিবার কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

শেরপুর জেলা শহরের তেরাবাজার জামিয়া সিদ্দিকীয়া মাদরাসা প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত নামাজে জানাজায় শোক জানিয়ে বক্তব্য রাখেন- শেরপুর পৌরসভার মেয়র গোলাম কিবরিয়া লিটন, শেরপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আদিল মাহমুদ উজ্জল, সাবেক সভাপতি মো. শরিফুর রহমান, সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম, গাঙচিল সাহিত্য সংস্কৃতি পরিষদের সভাপতি ও সাংবাদিক রফিক মজিদ, সাহিত্যালোকের সভাপতি আরিফ হাসান, কবি সংঘের সহ সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান লাভলু প্রমুখ।

প্রথিতযশা সাংবাদিক কবি কলামিস্ট তালাত মাহমুদের মৃত্যুতে শেরপুর কবি সংঘ, গাঙচিল সাহিত্য সংস্কৃতি পরিষদ, সাহিত্যালোক, চারুধ্বনী ছড়া পরিষদ, শেরপুর প্রেসক্লাব, নকলা প্রেসক্লাব, প্রেসক্লাব নালিতাবাড়ী, নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব, শ্রীবরদী প্রেসক্লাব, ঝিনাইগাতী প্রেসক্লাব, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা শেরপৃুর জেলা শাখাসহ নকলা, নালিতাবাড়ী, শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী উপজেলা শাখা; শেরপুর ইয়ূথ রিপোর্টার্স ক্লাব ও নকলা ইয়ূথ রিপোর্টার্স ক্লাব, শেরপুর অনলাইন জার্নালিস্ট ফোরাম, মানবাধিকার সংস্থা সৃষ্টি হিউম্যান রাইটস সোসাইটি, শেরপুর গ্র্যাজুয়েট ক্লাব, কবি সংঘ বাংলাদেশ, শেরপুর রিপোর্টার্স ইউনিটি, রক্তসৈনিক বাংলাদেশ, আজকের তারুণ্য, পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ আন্দোলন, রক্তদান সংস্থা (রজীবা), সম্মিলিত স্বেচ্ছাসেবী ফোরাম, উন্মোচন সাহিত্য পরিষদ, প্রিয় শিক্ষালয় পরিবারসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও সেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে এবং বিভিন্ন গণমাধ্যম পরিবারের পক্ষথেকে আলাদা ভাবে শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

শোক প্রকাশকারী সকলেই মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনার পাশাপাশি মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

তালাত মাহমুদ মৃত্যুকালে স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি কবি সংঘ বাংলাদেশের  সভাপতি, ঢাকা রিপোর্টের সহযোগী সম্পাদক, বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সেচ্ছাসেবী সংগঠনের উপদেষ্টার দায়িত্বে ছিলেন। তার মৃত্যুতে শেরপুরের সাহিত্য ও সাংবাদিকতা জগতে এক বিরাট শূন্যতার সৃষ্টি হলো বলে অনেকে মনে করছেন।

সাম্প্রতিক দেশকাল ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2024 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh

// //