জেরুজালেমে ফের ব্যাপক সংঘর্ষ, আহত ২০৫

জেরুজালেমে ফের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। ছবি : আল জাজিরা

জেরুজালেমে ফের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। ছবি : আল জাজিরা

ইসরায়েল অধিকৃত এলাকা থেকে ‘সম্ভাব্য উচ্ছেদ’ নিয়ে উত্তেজনার মধ্যে আল আকসা মসজিদ এলাকায় ইসরায়েলির পুলিশের সাথে ফিলিস্তিনের বিক্ষোভকারীদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে আহত হয়েছে শতাধিক। 

আজ সোমবার (১০ মে) ভোরে মসজিদে ইবাদত করার সময় ইসরাইলি বাহিনী রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস ও সাউন্ড গ্রেনেড ছুঁড়েছে। 

প্যালেস্টাইন রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি জানায়, সংঘর্ষে অন্তত ২১৫ জন আহত হয়েছে, এদের মধ্যে ১৫৩ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।  

সংঘর্ষের জেরে জেরুসালেম সংলগ্ন অঞ্চল থেকে ফিলিস্তিনিদের উৎখাত করার যে মামলার শুনানি আজ সোমবার (১০ মে) হওয়ার কথা ছিল, তা স্থগিত করা হয়েছে।

জেরুসালেম নিয়ে ইসরায়েলের ইহুদিদের সাথে ফিলিস্তিনের মুসলিমদের সংঘাত বহুদিনের। ওই অঞ্চলটি কাদের, তা নিয়েই সংঘাত। ইসরায়েল বেশ কিছুদিন আগেই জানিয়েছিল, জেরুজালেমের পার্শ্ববর্তী অঞ্চল থেকে ফিলিস্তিনিদের সরিয়ে দেয়া হবে। সেই মোতাবেত উৎখাত করার নোটিশও জারি হয়েছিল। যা নিয়ে মামলা হয়। সোমবার সেই মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, মামলায় ইসরায়েলের পক্ষে রায় হতো।

গত শুক্রবার রাত থেকেই এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন ফিলিস্তিনের আন্দোলনকারীরা। বিক্ষোভ দমন করতে সেখানে পৌঁছায় ইসরায়েলের পুলিশ। গতকাল রবিবার (৯ মে) বিকেলের পর থেকে বিক্ষোভ চরম আকার ধারণ করে। পাল্টা আঘাত করে ইসরায়েলের পুলিশও। ইসরায়েলের পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, বেশ কিছু পুলিশ অফিসার আহত হয়েছেন। ঘটনার পর উত্তেজনা কমাতে আদালতের শুনানি বাতিল করা হয়।

ইসরায়েল পুলিশের মুখপাত্র এলি লেভি জানিয়েছেন, আজ সোমবার জেরুজালেম ডে প্যারেড বন্ধ রাখার কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই। এই দিন জাতীয়বাদী ইসরায়েলিরা জেরুজালেমে প্যারেড করে। যা ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা তৈরি হয়।

এক ফিলিস্তিনি চিকিৎসক আল জাজিরাকে জানান, এক মুসুল্লির ঘাড়ে রাবার বুলেট আঘাত করেছে। আব্দুল্লাহ ইদ্রিস নামে আল আকসা মসজিদের ভেতরে আটকে পড়া এক ফিলিস্তিনি বলেন, পুরো মসজিদ এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। মসজিদের ভেতরেও টিয়ার গ্যাস ঢুকেছে। মেডিকেল স্টাফদের আহতদের কাছে যেতে বাধা দেয়া হচ্ছে।    

গোটা ঘটনাটি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জাতিসংঘ। দ্রুত সমস্যার সমাধানের দাবি করা হয়েছে। ইসরায়েল যাতে উত্তেজনা প্রশমনের ব্যবস্থা করে, তাও দাবি করা হয়েছে। -ডয়চে ভেলে ও আল জাজিরা

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

ঠিকানা: ১০/২২ ইকবাল রোড, ব্লক এ, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

© 2021 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh