১০ বছর কোনো আয়করই দেননি ট্রাম্প

 ডোনাল্ড ট্রাম্প

ডোনাল্ড ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মুখেই বোমা ফাটালো দেশটির দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমস। ২০১৬ ও ২০১৭ সালে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মাত্র ৭৫০ ডলার করে আয়কর দিয়েছেন।

দৈনিকটি জানিয়েছে, যে বছর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছিলেন সেই ২০১৬ সালে এবং প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর হোয়াইট হাউসের প্রথম বছর ২০১৭ সালে ডনাল্ড ট্রাম্প মাত্র ৭৫০ ডলার করে আয়কর দিয়েছিলেন।

নিউইয়র্ক টাইমসের দাবি, তাদের কাছে সব নথিপত্র রয়েছে- যা থেকে বোঝা যাচ্ছে, ট্রাম্প কর দেননি। 

আর ট্রাম্প এই খবরকে ফেক নিউজ বা ভুয়া খবর বলে উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, আমি আসলে আয়কর দিয়েছি। সেটা নিয়ে অডিট হচ্ছে। দীর্ঘ সময় ধরে অডিট হয়েই চলেছে। 

সব দোষ কর কর্তৃপক্ষের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের দাবি, কর কর্তৃপক্ষ আমার সাথে ভালো ব্যবহার করছে না। তারা আমার সাথে খুবই খারাপ ব্যবহার করছে।

ট্রাম্প তার আয়কর রিটার্ন প্রকাশ করেননি। ১৯৭০ সালের পর থেকে তিনিই প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি আয়করের রিটার্ন প্রকাশ করলেন না। এটা অবশ্য আইন অনুযায়ী তিনি করতে বাধ্য এমন নয়। তবে মার্কিন প্রসিডেন্টরা স্বচ্ছতার জন্য নিজের আয়কর রিটার্ন প্রকাশ করে দেন।

নিউইয়র্ক টাইমসের রিপোর্টও বলছে, ট্রাম্পের সাথে ইন্টারনাল রেভিনিউ সার্ভিসের এক দশক ধরে বিরোধ চলছে। ট্রাম্প তার বিশাল ক্ষতি দেখিয়ে ৭ কোটি ২৯ লাখ ডলারের ট্যাক্স রিফান্ড দাবি করেছেন। বিরোধ সেটা নিয়েই। সংবাদপত্রটির দাবি, ট্রাম্প ও তার কোম্পানিগুলির গত দুই দশকের আয়কর রিটার্নের তথ্য তাদের হাতে এসেছে। এই নথি খতিয়ে দেখে তাদের মনে হয়েছে, এ নিয়ে প্রচুর প্রশ্ন উঠতে বাধ্য।

রিপোর্ট বলছে, গত ১৫ বছরের মধ্যে ১০ বছরই বিপুল ক্ষতির কথা জানিয়ে ট্রাম্প কোনো আয়কর দেননি। আর যে বছর প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়েছিলেন ও প্রেসিডেন্ট হিসাবে প্রথম বছরে মাত্র সাড়ে সাতশ ডলার আয়কর দিয়েছিলেন। অথচ তিনি প্রচুর সম্পত্তি ও ব্যবসার মালিক। 

ট্রাম্পের দাবি, তার গল্ফ কোর্স, হোটেল বছরের পর বছর কোটি কোটি ডলার ক্ষতি করছে। মিয়ামিতে তার সব চেয়ে বড় গল্ফ কোর্স রিসোর্ট ২০১৮ সালে ১৬ কোটি ২৩ লাখ ডলার ক্ষতি করেছে। তাছাড়া স্কটল্যান্ডে দুইটি ও আয়ারল্যান্ডে একটি গল্ফ রিসোর্টে ছয় কোটি ৩৩ লাখ ডলারের ক্ষতি হয়েছে। আগামী চার বছরে তাকে ৩০ কোটি ডলার ঋণ ও অন্য পাওনা মেটাতে হবে। -ডয়চে ভেলে

মন্তব্য করুন

Epaper

সাপ্তাহিক সাম্প্রতিক দেশকাল ই-পেপার পড়তে ক্লিক করুন

Logo

© 2020 Shampratik Deshkal All Rights Reserved. Design & Developed By Root Soft Bangladesh